তিন সহকর্মীকে হত্যার পর নিজেকেও গুলি করলেন মালয়েশিয়ার বিমানসেনা!

|

মালয়েশিয়ার রাজকীয় বিমান বাহিনীর একটি ঘাঁটিতে এই ঘটনা ঘটে।

আহমাদুল কবির, মালয়েশিয়া:

মালয়েশিয়ার রাজকীয় বিমান বাহিনীর (আরএমএএফ) একটি ঘাঁটিতে গোলাগুলিতে অন্তত চারজন বিমান বাহিনী সদস্যের প্রাণহানি ঘটেছে। শুক্রবার (১৩ আগস্ট) স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে সাতটার দিকে বিমান বাহিনীর এক সদস্য গুলি চালিয়ে তিন সহকর্মীকে হত্যার পর নিজেও আত্মহত্যা করেছে বলে জানিয়েছে দেশটির গণমাধ্যম।

মালয়েশিয়ার সারাওয়াক পুলিশের কমিশনার দাতুক আইদি ইসমাইল বলেছেন, আরএমএএফের একটি শিবিরে সৈন্যদের বসবাসের স্থানে গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এক বিবৃতিতে তিনি বলেছেন, প্রাথমিক তদন্তে দেখা গেছে, নিহতরা শিবিরে সৈন্যদের বসবাসের স্থানে দায়িত্বরত ছিলেন। কেন এই গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে তা জানতে তদন্ত চলছে।

স্থানীয় গণমাধ্যম বলছে, গোলাগুলিতে নিহত বিমানবাহিনীর কর্মীরা সেখানে করোনাভাইরাস কোয়ারেন্টাইন পালন করছিলেন। সেখানকার এক সদস্য একটি নিরাপত্তা চৌকি থেকে আগ্নেয়াস্ত্র ছিনিয়ে নেওয়ার পর গুলি চালালে তাদের প্রাণহানি ঘটে।

এ সময় তার একজন সহকর্মী আগ্নেয়াস্ত্রধারীকে শান্ত করার চেষ্টা করলে তিনি বলেন, আপনি বাঁচতে নাকি মরতে চান? পরে তার তলপেটে গুলি চালিয়ে হত্যা করেন এবং অন্যদের লক্ষ্য করে গুলি চালান। গোলাগুলির এই ঘটনায় ঘটনাস্থলেই দুইজনের প্রাণহানি ঘটে এবং তৃতীয়জন আহত অবস্থায় একটি ক্লিনিকে যাওয়ার পর মারা যান।

সহকর্মীদের হত্যার পর ওই বন্দুকধারীও গুলি চালিয়ে আত্মহত্যা করেন। কর্তৃপক্ষ এই হত্যাকাণ্ডের উদ্দেশ্য জানতে তদন্ত শুরু করেছে। গোলাগুলির সময় সব কর্মকর্তাই দায়িত্বরত ছিলেন।

/এস এন





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply