রংপুরে পরকীয়ায় বাধা দেয়ায় স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

|

রংপুর মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল। ছবি: সংগৃহীত।

স্টাফ রিপোর্টার, রংপুর:

রংপুরে পীরগাছায় স্বামীর বিরুদ্ধে স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। পরিবারের অভিযোগ, পরকীয়া প্রেমে বাধা দেয়ার কারণে স্ত্রী হাজেরা বেগমকে (৩৯) পিটিয়ে হত্যা করে স্বামী সাহেব আলী।

শুক্রবার (১৩ আগস্ট) বিকেলে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান এই গৃহবধূ।

নিহত গৃহবধূর পরিবারের উদ্ধৃতি দিয়ে পীরগাছা থানার ওসি আজিজুল ইসলাম জানান, বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার হাউদার পাড় গ্রামে স্বামী সাহেব আলী পরকীয়া প্রেমে বাধা দেয়ার জের ধরে স্ত্রী হাজেরা বেগমকে মাথায় এবং কোমরে বেধড়ক পেটায়। এতে তিনি গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে তার মুখে বিষ ঢেলে দিয়ে সার ব্যবসায়ী সাহেব আলী স্ত্রীকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করান। শুক্রবার বিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় স্ত্রী হাজেরা বেগম মারা যায়। তাদের ২০ বছরের দাম্পত্য জীবনে তিন সন্তান আছে।

এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান ওসি আজিজুল ইসলাম ।

নিহতের ছোট ভাই ফজর আলী জানান, আমার বোন তার পরকীয়া প্রেমে বাধা দেয়ায় তাকে পিটিয়ে হত্যার পর মুখে বিষ ঢেলে দিয়ে হাসপাতালে নিয়ে গিয়েছিল। তিনি প্রভাবশালী হওয়ায় এখন ঘটনাটি ধামাচাপা দেয়ার জন্য চেষ্টা করছেন। এ ঘটনায় আমরা হত্যা মামলা করব।

রংপুর মেডিকেল কলেজের ফরেনসিক বিভাগের অধ্যাপক ডা. আসমাউল হুসনা জানান, নিহত গৃহবধূ হাজেরার মাথা, কোমর ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে ক্ষত আছে। কীভাবে মৃত্যু হলো তার জন্য ফরেনসিক রিপোর্টের অপেক্ষা করতে হবে।

ঘটনার পরপরই আত্মগোপনে চলে গেছেন সার ব্যবসায়ী সাহেব আলী। তাকে সার্বক্ষণিক নজরদারিতে রেখেছে পীরগাছা থানা পুলিশ।

/এস এন





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply