জামিন আবেদন নামঞ্জুর, কারাগারে পরীমণি

|

আদালত প্রাঙ্গণে পরীমণি। ফাইল ছবি।

চিত্রনায়িকা পরীমণি ও তার সহযোগী আশরাফুল ইসলাম দীপুর জামিন নামঞ্জুর করে তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে করা মামলায় এই আদেশ দিয়েছেন আদালত। এছাড়া প্রযোজক রাজ ও তার সহযোগী সবুজের বেলায়ও একই আদেশ দেওয়া হয়।

শুক্রবার (১৩ আগস্ট) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট ধীমান চন্দ্র মণ্ডল এসব আদেশ দেন।

এর আগে, চিত্রনায়িকা পরীমণি, প্রযোজক রাজ এবং কথিত মডেল মৌসহ পাঁচ আসামিকে আজ দুপুরে আদালতে নেয়া হয়। এবার নতুন করে রিমান্ড চায়নি তদন্তকারী সংস্থা সিআইডি।
তবে মামলার তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাকে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির পরিদর্শক গোলাম মোস্তফা।

অপরদিকে, পরীমণির আইনজীবী মজিবুর রহমান জামিন চেয়ে আবেদন করেন। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আব্দুল্লাহ আবু পরীমণির জামিনের বিরোধিতা করেন। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

গত ১০ আগস্ট বনানী থানার মাদক মামলায় পরীমণি ও দিপুকে দুই দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছিলেন আদালত। এছাড়া মাদক মামলায় রাজেরও দ্বিতীয় দফায় দুই দিন এবং পর্নোগ্রাফি মামলায় রাজ ও তার সহযোগী সবুজকে চার দিনের জন্য রিমান্ডে পাঠিয়েছিল আদালত।

এর আগে, ৫ আগস্ট পরীমণি ও রাজকে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে পুলিশ। এরপর শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম মামুনুর রশীদ প্রত্যেকের চার দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

উল্লেখ্য, গত বুধবার (৪ আগস্ট) সন্ধ্যায় রাজধানীর বনানীতে নিজ বাসা থেকে মাদকসহ গ্রেফতার করা হয় পরীমণিকে। এর পরপরই বনানীর নিজ কার্যালয় থেকে গ্রেফতার করা হয় প্রযোজক রাজকেও।

অন্যদিকে, রোববার (১ আগস্ট) মরিয়ম আক্তার মৌয়ের রাজধানীর মোহাম্মদপুর বাবর রোডের বাসায় অভিযান চালায় গোয়েন্দা পুলিশ। পরে রাত ১টার দিকে মৌকে আটক করা হয়। তার বাসা থেকে বিপুল পরিমাণ মদ, ইয়াবা, বিয়ার ও সিসা তৈরির সরঞ্জাম জব্দ করার কথা জানায় র‍্যাব।

/এস এন





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply