মাইক্রোবাসের ধাক্কায় দুই বাইক আরোহী নিহত, পরিবারের দাবি পরিকল্পিত হত্যাকান্ড

|

ষ্টাফ রিপোটার:

নরসিংদীর শিবপুরে মাইক্রোবাসের ধাক্কায় মোটরসাইকেলের দুই আরোহী নিহত হয়েছেন। নিহতদের পরিবারের দাবি এটি দূর্ঘটনা নয় বরং পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড।

গতকাল বৃহস্পতিবার (১২ আগস্ট) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে কামারটেক
নামক এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। তবে এই দুর্ঘটনাকে পরিকল্পিত হত্যাকান্ড বলে দাবি নিহতদের পরিবারের সদস্যদের।

নিহতরা হলেন- বেলাব উপজেলার বারৈচা গ্রামের মো. মনির হোসেন (৩৫) ও রায়পুরা উপজেলার লোচনপুর গ্রামের শাহানশাহ আলম বিপ্লব (২৮)।

ইটাখোলা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক নূর হায়দার তালুকদার, প্রত্যক্ষদর্শী ও নিহতের স্বজনেরা জানান, নরসিংদী শহরে কাজ শেষে মনির ও বিপ্লব একটি মোটরসাইকেল যোগে বারৈচা ফিরছিলেন। তাদের মোটর সাইকেলটি শিবপুর উপজেলার কামার টেক এলাকায় পৌঁছালে পেছন দিক থেকে বেপরোয়া গতিতে আসা একটি মাইক্রোবাস
তাদের মোটর সাইকেলটিকে চাপা দেয়। এতে মোটরসাইকেলটি দুমড়ে মুচড়ে গিয়ে ঘটনাস্থলেই মোটরসাইকেলে থাকা দুই আরোহীর মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে হাইওয়ে পুলিশ মরদেহ দুটি উদ্ধার ও মাইক্রোবাসটি জব্দ করেছে।

নিহত মনির হোসেনের পিতা তোতা মিয়া ও নিহত বিপ্লবের ভাই সোহাগ মিয়া অভিযোগ করে সাংবাদিকদের বলেন, পূর্ব বিরোধের জেরে পরিকল্পিতভাবে একই এলাকার একটি মাইক্রোবাস ভাড়া করে প্রতিপক্ষরা। পরে বাড়ি ফেরার পথে ওই মাইক্রোবাস দিয়ে তাদের চাপা দিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

ইটাখোলা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক নূর হায়দার তালুকদার জানান, মাইক্রোবাসটি বেপরোয়া গতিতে চালিয়ে ওভারটেক করার সময় পেছন থেকে মোটর সাইকেলটিকে ধাক্কা দিলে এই দুর্ঘটনা ঘটে। এতে ঘটনাস্থলেই মোটরসাইকেলের দুই আরোহীর মৃত্যু হয়।

এ সময় হায়েস মাইক্রোবাসের ড্রাইভার পালিয়ে যায়। লাশ দুটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

/এসএইচ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply