মিরপুরে কথিত সাংবাদিক আটক

|

পল্লবী থানা পুলিশ কথিক সাংবাদিক আমিরুজ্জামানকে আটক করেছে।

রাজধানীর মিরপুরে চাঁদাবাজি ও দখলবাজির অভিযোগে কথিত এক সাংবাদিকককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আমিরুজ্জামান নামের কথিত ঐ সাংবাদিক স্থানীয়ভাবে প্রকাশিত দৈনিক খবরের আলো নামক একটি পত্রিকার সম্পাদক বলে জানা গেছে।

মিরপুর প্রেসক্লাব নামের ভুঁইফোড় একটি সংগঠনের স্বঘোষিত সাধারণ সম্পাদকও তিনি। এক ভুক্তভোগীর অভিযোগের ভিত্তিতে আমিরুজ্জামানকে গ্রেফতার করা পল্লবী থানা পুলিশ বলছে, পত্রিকা ও প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক পরিচয়ে জায়গা দখল, চাঁদাবাজি ছাড়াও বিভিন্ন ধরণের একাধিক অভিযোগ রয়েছে আমিরুজ্জামান ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে।

সহজে খুঁজে পাওয়া যায়না, এমন যায়গায় পত্রিকা অফিসের সাইনবোর্ড। অভিযোগ আছে অন্যের জায়গা অবৈধভাবে দখল করে আমিরুজ্জামান ও তার সহযোগীরা গড়ে তুলেছেন পত্রিকা অফিস। পাশেই মিরপুর প্রেসক্লাব নামক একটি ভুঁইফোড় সংগঠনের কার্যালয়। যার ভেতরে রয়েছে ছোট ছোট বেশ কয়েকটি কক্ষ, যেখানে আমিরের ভাগ্নী জামাই পরিবার নিয়ে থাকেন। স্থানীয়রাও সঠিকভাবে জানেননা ভবনের ভেতরে কি হয় বা কি কাজে ব্যবহার করা হয়।

বিকেলে যখন পত্রিকা অফিসগুলো সাধারণত খবর নিয়ে সরগরম থাকে তখন- এই পত্রিকা অফিসে নেই কোনো সাংবাদিক। অফিস সহায়ক জানালেন, প্রায়ই তালাবন্ধ থাকে অফিসটি।

অন্যপাশে মিরপুর প্রেসক্লাব কার্যালয়ে রয়েছে একটি ক্যারম বোর্ড, টেবিল আর বেশ কিছু চেয়ার। এখানেই ঘটা করে নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন হতো বলে জানান স্থানীয়রা। রীতিমত আয়োজন করে পত্রিকার সাংবাদিকদের হাতে তুলে দেয়া হতো পরিচয়পত্র।

মিরপুর প্রেসক্লাবটির সভাপতি গোলাম কাদের। এছাড়া এসএম আহসানউল্লাহ নামে একজন মুক্তিযোদ্ধাসহ এ সংগঠনের দুটি গুরুত্বপূর্ণ পদে রয়েছেন শামীমা ও পপি নামে দুজন নারীও।

দখল ও চাঁদাবাজির মামলায় গ্রেফতার আমিরুজ্জামানের বিরুদ্ধে রয়েছে নানা অভিযোগ।
পুলিশও জানায় আমিরুজ্জামানের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগের কথা। পল্লবী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পারভেজ ইসলাম জানান, পুলিশ আমিরুজ্জামানের বিরুদ্ধে সব অভিযোগের তথ্য গুরুত্বের সাথে যাচাইবাছাই করবে।

/এসএইচ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply