টাইব্রেকারে ভিয়ারিয়ালকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন চেলসি

|

ছবি: সংগৃহীত

চ্যাম্পিয়ন্স ও ইউরোপা লিগের সেরা দুই দলের লড়াই, উয়েফা সুপার কাপের ট্রফি জিতেছে চেলসি। নির্ধারিত ও অতিরিক্ত সময়ের খেলা ১-১ গোলে অমীমাংসিত থাকায় ম্যাচের ভাগ্য নির্ধারণ হয় টাইব্রেকারে। যেখানে সাডেন ডেথে ভিয়ারিয়ালকে ৬-৫ গোলে হারিয়ে শিরোপা উৎসব করে চেলসি।

বেলফাস্টে ভিয়ারিয়ালের বিপক্ষে ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ছিলো চেলসি। বল পজিশন থেকে শুরু করে আক্রমণের সংখ্যা সব কিছুর বিচারে এগিয়ে থাকা দলটি লিড পায় ২৭ মিনিটে। হ্যাভেটসের পাস স্কোর শিটে নাম লেখেন হাকিম জিয়াশ।

পিছিয়ে পড়ার পর দারুণ ভাবে ম্যাচে ফেরে ভিয়ারিয়াল। ৩২ মিনিটে স্ট্রাইকার বুলে দিয়ার আক্রমণ দুর্দান্ত ভাবে রুখে দেন চেলসি কিপার মেন্ডি। আর প্রথমার্ধের ইনজুরি সময়ে আলবের্তো মরোনোর ভলি ক্রসবারে লেগে ফিরলে গোল বঞ্চিত হয় ইনাই এমরির দল।

দ্বিতীয়ার্ধে কাঙ্ক্ষিত গোলের দেখা পায় ভিয়ারিয়াল। ৭৩ মিনিটে বুলে দিয়ার অ্যাসিস্ট থেকে জেরাডো মরেনোর গোলে সমতায় ফেরে স্পেনের ক্লাবটি।

ম্যাচের ইনজুরি সময়ে মার্কো আলোনসরোর শট লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়ে গোল বঞ্চিত হয় চেলসি। ম্যাচ গড়ায় অতিরিক্ত সময়ে। যেখানেও স্কোর লাইন ১-১ গোলে অমীমাংসিত থাকায় টাইব্রেকারে নিষ্পত্তি হয় ম্যাচের ফল।

চেলসির পেনাল্টি রুখে দেয় ভিয়ারিয়াল। হ্যাভেটসে গোল বঞ্চিত করেন সের্হিও আসেনহো। ভিয়ারিয়ালের দ্বিতীয় পেনাল্টি শট রুখে দেন চেলসির বদলি কিপার কেপা। প্রথম ৫ শটে ৪-৪ গোলে সমতা থাকায় সাডেন ডেথে হয় ভাগ্য নির্ধারণ। যেখানে ভিয়ারিয়াল অধিনায়ক রাউল আলবিওলের ষষ্ঠ শট ঠেকিয়ে চেলসিকে ৬-৫ গোলের জয়ে এনে দেন স্প্যানিশ গোলরক্ষক কেপা। শিরোপা দিয়ে মৌসুম শুরুর উৎসবে মাতে চেলসি।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply