মায়ের প্রেমিককে হত্যার দায়ে ছেলে গ্রেফতার

|

পিবিআইয়ের হাতে গ্রেফতার ছেলে ও মা।

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি:

চট্টগ্রামে মায়ের কথিত প্রেমিককে হত্যার দায়ে ছেলে আশরাফুল হক সাব্বিরকে গ্রেফতার করেছে পিবিআই। ঘটনার দশ মাস পর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ থানার সোহাগপুর গ্রাম থেকে তাকে আটক করা হয়। একই সাথে আটক করা হয়েছে তার মা শিউলী বেগমকেও।

শনিবার (৮ আগস্ট) মধ্যরাতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার আশুগঞ্জ থানাধীন সোহাগপুর এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

পিবিআই জানায়, শিউলী বেগমের স্বামী সৌদি প্রবাসী। তিনি তার স্বামী আনোয়ারের মামাতো ভাই নবী হোসেনের সাথে পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়েন। শিউলী বেগমের ছেলে আশরাফুল হক সাব্বির বিষয়টি জানার পর ২০২০ সালের ১৬ অক্টোবর নবী হোসেনকে হত্যা করে। পরে নবী হোসেনের লাশ চট্টগ্রামের পটিয়া থানাধীন মনসারটেক এলাকায় মহাসড়কের পাশে জঙ্গলে ফেলে রেখে যায়। পরে লাশ উদ্ধার করে পটিয়া থানা পুলিশ।

ঘটনার তদন্ত করতে গিয়ে ফিঙ্গারপ্রিন্টের মাধ্যমে নিহতের লাশ শনাক্ত করে পিবিআই। পরে স্বজনদের খবর দেয়া হলে নিহতের ভাই কবির হোসেন একটি হত্যা মামলা দায়ের করে।

সেই মামলার তদন্ত করতে গিয়ে পিবিআই জানতে পারে, সৌদি প্রবাসী আনোয়ারের স্ত্রী শিউলী বেগম নবী হোসেনের সাথে পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়ার পর তারা বিয়েও করেন। বিষয়টি সাব্বির জানার পর তা মেনে নিতে পারেননি। প্রতিশোধ পরায়ণ হয়ে তিনি নবী হোসেনকে হত্যার পরিকল্পনা করেন।

পিবিআইকে সাব্বির জানায়, এক দফা অপহরণে ব্যর্থ হয়ে পুনরায় একটি প্রাইভেট কার ভাড়া করে কৌশলে নবী হোসেনকে নিয়ে চট্টগ্রামের দিকে রওনা দেন। পথিমধ্যে কুমিল্লা মহাসড়কে সাব্বির তার অন্য সহযোগী তুষার, সুমন ও আশিকের সহযোগীতায় নবী হোসেনকে গলায় গামছা পেঁচিয়ে হত্যা করেন। মৃত্যু নিশ্চিতে কাটা হয় নবী হোসেনের পায়ের রগও।

এ ঘটনায় আগেই আশিক ও সুমনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। শনিবার গ্রেফতার হওয়া সাব্বির ও শিউলী আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছে বলে জানিয়েছে পিবিআই।

এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও পিবিআইয়ের পরিদর্শক মো. মনির হোসেন জানান, তথ্যপ্রযুক্তির ও গোপন সংবাদদাতাদের মাধ্যমে তাদের অবস্থান নিশ্চিত হয়ে দুই আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মামলার অন্যান্য আসামীদের গ্রেফতারেও অভিযান অব্যাহত আছে।

/এস এন





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply