রাতে নিখোঁজ নির্মাণ শ্রমিক, সকালে মাথায় গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার

|

বেগমগঞ্জ থানা, নোয়াখালী।

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার আলাইয়াপুর ইউনিয়নের একটি বাগান থেকে মো. রাশেদ (১৯) নামে এক নির্মাণ শ্রমিকের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তার মাথায় গুলি লেগেছিল। ওই শ্রমিকের পরিবার জানিয়েছে, শনিবার (৭ আগস্ট) রাতে থেকে নিখোঁজ ছিলেন নিহত রাশেদ।

রোববার (৮ আগস্ট) ১১টার দিকে আলাইয়াপুর ইউনিয়নের ৫নম্বর ওয়ার্ডের হরিবল্লবপুর গ্রামের অয়েদ আলী ভূঞা বাড়ির পশ্চিমে একটি বাগান থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহতের স্বজন আনোয়ার হোসেন জানান, রাশেদ ঢাকায় নির্মাণ শ্রমিক হিসেবে কাজ করতো। লকডাউনের কারণে কয়েকদিন আগে বাড়িতে আসে সে। গত ৩-৪ দিন আগে একদিন রাতে রাশেদের সাথে একই বাড়ির বেচু মিয়ার ছেলে রুবেলের (৩০) চোখে টর্চ লাইটের আলো পড়াকে কেন্দ্র করে ঝগড়া হয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে রুবেলের সহযোগীরা রাশেদের ওপর হামলা চালিয়ে তিন দফায় পিটিয়ে আহত করে। এ ঘটনায় রাশেদের পরিবার বেগমগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ করলে পুলিশ তদন্তে আসে।

তিনি আরও বলেন, ওই ঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে রুবেলের সহযোগী শাকিল, সুজন, আকবর, মারুফ, মঞ্জুসহ আরও কয়েকজন রাশেদের চাচা লোকমান হোসেনকে মারধর করে। এ বিষয়ে থানায় অভিযোগ করায় সন্ত্রাসীরা রাশেদের চাচা লোকমানকে হুমকি দিয়ে যায়। এরপর শনিবার রাত ১০টা থেকে নিখোঁজ হয় রাশেদ। পরে সকাল ৬টার দিকে বাড়ি থেকে প্রায় দুই কিলোমিটার দূরের একটি বাগানে রাশেদের লাশ দেখতে পায় স্থানীয়রা।

নিহতের পরিবার দাবি করে, থানায় লিখিত অভিযোগ করায় রুবেল ও অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরাই রাশেদকে ধরে নিয়ে মাথায় গুলি করে হত্যা করে।

এদিকে, লাশ উদ্ধারের পর গা ঢাকা দিয়েছে রুবেল ও তার সহযোগীরা। তাদেরকে এলাকায় খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

বেগমগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুজ্জামান সিকদার জানান, ঘটনাস্থল থেকে মাথায় গুলিবিদ্ধ অবস্থায় রাশেদের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। পরবর্তীতে এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

/এস এন


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply