পরীমণির অবৈধ কাজে যারা জড়িত তাদেরও গ্রেফতার করা হবে: যুগ্ম কমিশনার হারুন

|

ডিবির যুগ্ম কমিশনার হারুন অর রশিদ।

পরীমণির অবৈধ কাজে যারাই জড়িত তাদেরও গ্রেফতার করা হবে বলে জানিয়েছেন ডিবির যুগ্ম কমিশনার হারুন অর রশিদ।

শুক্রবার (৬ আগস্ট) দুপুর সোয়া ২টার দিকে ডিএমপির ডিবি কার্যালয়ের সামনে ডিবির যুগ্ম কমিশনার হারুন অর রশিদ সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

তিনি বলেন, পরীমণি যেসব অবৈধ কাজ ও ব্যবসা করতেন, সেগুলো কাদেরকে নিয়ে করতেন, কাদের সহযোগিতায় করতেন, কারা তার নেপথ্যে রয়েছে, আমরা তাদের নাম পেয়েছি। তার বক্তব্য নোট করছি। যারাই তার সঙ্গে জড়িত ছিল তাদের সবাইকেই গ্রেফতার করা হবে।

প্রযোজক নজরুল ইসলাম রাজের বিষয়ে তিনি বলেন, রাজ একজন লেখাপড়া না জানা মানুষ। সে ছোট একটা চাকরি করতো। বিভিন্ন মডেলকে নিয়ে সে ঘরোয়া পার্টি করতো। উচ্চবিত্তদের মডেল সাপ্লাই দিতো। তার কাছ থেকেও আমরা তথ্য পেয়েছি। এ ঘটনার সাথে জড়িত সকলকেই আইনের আওতায় আনা হবে।

এর আগে, চিত্রনায়িকা পরীমণি ও প্রযোজক নজরুল ইসলাম রাজের মাদকের দুই মামলার তদন্তভার গোয়েন্দা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) চিত্রনায়িকা পরীমণিসহ চারজনকে চারদিন করে রিমান্ড দিয়েছেন আদালত। এরপর তাদের ডিবি কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়।

গত বুধবার (৪ আগস্ট) চিত্রনায়িকা পরীমণিকে তার বনানীর বাসা থেকে আটক করে র‍্যাব। এসময় অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ মাদক উদ্ধারের কথা জানায় সংস্থাটি। অভিযানের শুরুর দিকে ফেসবুক লাইভে এসে এ চিত্রনায়িকা দাবি করেন কে বা কারা তার বাসায় হামলা, ভাঙচুর চালিয়েছে। এক পর্যায়ে বলেন, আমি ডিবি অফিসে ফোন করেছি, বনানী থানায় ফোন করেছি। হারুন ভাইকে (মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার) ফোন করলে তিনি বলেন, তদন্তের স্বার্থে পুলিশ যেতে পারেন। আমি বলেছি আপনি কনফার্ম না করলে আমি দরজা খুলবো না। পরে তিনি ফোন করে বলেন, আমাদের এখান থেকে কেউ যায়নি। আমি জানি না কারা গেছে।

অভিযানের শুরুর দিকে ফেসবুক লাইভে এসে এ চিত্রনায়িকা দাবি করেন কে বা কারা তার বাসায় হামলা, ভাঙচুর চালিয়েছে। এক পর্যায়ে বলেন, আমি ডিবি অফিসে ফোন করেছি, বনানী থানায় ফোন করেছি। হারুন ভাইকে (মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার) ফোন করলে তিনি বলেন, তদন্তের স্বার্থে পুলিশ যেতে পারেন। আমি বলেছি আপনি কনফার্ম না করলে আমি দরজা খুলবো না। পরে তিনি ফোন করে বলেন, আমাদের এখান থেকে কেউ যায়নি। আমি জানি না কারা গেছে।

সম্প্রতি, ঢাকা বোটক্লাবে গিয়ে হত্যা ও ধর্ষণচেষ্টার শিকার হওয়ার অভিযোগ এনে আলোচনার জন্ম দেন পরীমণি। এ ঘটনার সূত্র ধরে গ্রেফতার হন বোটক্লাবের কর্মকর্তা নাসির উদ্দিন মাহমুদ। সে সময় পরীমণিকে সাথে নিয়ে গণমাধ্যমে কথা বলেছিলেন ডিবি যুগ্ম কমিশনার হারুন অর রশিদ। গণমাধ্যমে ডিবির কার্যক্রমে সন্তোষ প্রকাশ করেছিলেন পরীমণি।

ইউএইচ/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply