ইরাক থেকে লুট করা ঐতিহাসিক নিদর্শন ফেরত দিচ্ছে আমেরিকা

|

লুট হওয়া ঐতিহাসিক নিদর্শন হস্তান্তরের ব্যাপারে কথা বলছেন ইরাকের পররাষ্ট্র মন্ত্রী ফুয়াদ হুসেইন ও সংস্কৃতি মন্ত্রী হাসান নাদিম।

ইরাকে ২০০৩ সালে শুরু হওয়া মার্কিন অভিযান চলাকালীন সময়ে লুট হওয়া বিপুল সংখ্যক প্রাচীন ঐতিহাসিক প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন ফেরত পাচ্ছে দেশটি। জানা গেছে, ১৭ হাজারের অধিক প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন ইরাকে ফেরত পাঠাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র।

গতকাল মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) এসব নিদর্শনের প্রথম চালান বাগদাদে এসে পৌছেছে। এসব প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শনের বেশিরভাগই তিন-চার হাজার বছরের পুরনো মেসিপটোমিয়ান ও আসিরিয়ান সভ্যতার। যার অন্তর্ভূক্ত, পাথরে খোদাই করা পৃথিবীর অন্যতম পুরনো সাহিত্য হিসেবে বিবেচিত একটি শিল্পকর্ম।

প্রাচীন মেসোপটেমিয়ান সভ্যতার দেশ ইরাকে ২০০৩ সালে মার্কিন সন্ত্রাস বিরোধী অভিযান শুরুর পর লাখ লাখ প্রত্নতাত্তিক নিদর্শন লুট হয় দেশটি থেকে। পশ্চিমা বিভিন্ন দেশে অমূল্য এসব নিদর্শন বিক্রি করে পাচারকারীরা।

সম্প্রতি ইউরোপ ও আমেরিকার বিভিন্ন নিলামকারী সংস্থা, ব্যক্তিগত সংগ্রহ ও জাদুঘর থেকে উদ্ধার করে এসব ঐতিহাসিক নিদর্শন ফেরত দেয়ার আশ্বাস দিয়েছে ওয়াশিংটন। তবে, লুট হওয়া বেশিরভাগ নিদর্শনেরই সন্ধান মেলেনি।

উল্লেখ্য যে, মার্কিন বিমান হামলাসহ সামরিক অভিযান ও আইএসের অপতৎপরতার মধ্যে বারবারই হামলা হয়েছে ইরাকের বিভিন্ন জাদুঘর ও প্রত্নতত্ত্বিক নিদর্শনের ভাণ্ডারে। ফলে লুট হওয়া, হারিয়ে যাওয়াসহ ধ্বংসপ্রাপ্ত হয়েছে ইরাকের অসংখ্য ঐতিহাসিক নিদর্শন।

/এসএইচ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply