কুমিল্লায় টিকা নিতে বাড়ছে ভিড়, উদাসীন শ্রমজীবীরা

|

কুমিল্লার একটি টিকা কেন্দ্রে টিকা নিতে আসা মানুষের ভিড়।

কুমিল্লায় করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যু বেড়ে যাওয়ায় মানুষের মাঝে বেড়েছে আতঙ্ক। তাই টিকা নিতে মানুষের আগ্রহ বেড়েছে। তবে, উল্টো চিত্র নিম্নআয়ের শ্রমজীবী মানুষের মাঝে। টিকা নিবন্ধনে নানা অজুহাত আর উদাসীনতা তাদের। প্রবীণদের অগ্রাধিকার দিয়ে জেলায় ১৯৩টি ইউনিয়নে গণটিকা কার্যক্রম শুরু করার সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে বলে জানিয়েছে জেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগ।

জুলাই মাস জুড়েই কুমিল্লায় উদ্বেগ ছড়িয়েছে ভারতীয় ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট। এক মাসে জেলায় করোনা পজেটিভ হয়েছে সাড়ে ১৪ হাজার মানুষ। মৃত্যু হয়েছে ২৪৭ জনের। এমন পরিস্থিতিতে উদ্বিগ্ন মানুষ টিকা নিয়েই সুস্থ্য থাকতে চাইছেন। তাই টিকা নিতে কেন্দ্রগুলোতে হুমড়ি খেয়ে পড়ছে জেলার সচেতন মানুষ।

টিকা কেন্দ্রে আসা লোকজন জানান, কুমিল্লায় যেভাবে করোনা বাড়ছে তাতে টিকা নেয়াটাকেই আমরা নিরাপদ মনে করছি। কারণ, টিকা নিলে আমাদের দেহের অ্যান্টিবডি বাড়বে।

টিকা কেন্দ্রে সচেতন মানুষের ভিড় বাড়লেও, উদাসীন নিম্নআয়ের মানুষ শ্রমজীবীরা। তাদের অনেকেই টিকা নিয়ে সচেতন নন। করোনা নামে ভাইরাসের কথা জানলেও তাদের কাছে আগ্রহ নেই টিকায়, বেশিরভাগের কাছেই নেই টিকা সম্পর্কিত তথ্য। তারা জানান, টিকা কিভাবে নিতে হয় আমরা জানি না। রেজিস্ট্রেশন কিভাবে করতে হয় সেটাও জানি না। কেউ রেজিস্ট্রেশন করে দিলে টিকা নিতে পারতাম।

স্থানীয় প্রশাসন জানিয়েছে, টিকা প্রদানের প্রক্রিয়া সহজ করে সবাইকেই ভ্যাকসিনের আওতায় অন্তর্ভুক্ত করা হবে। ইউনিয়ন পর্যায়ে গণটিকা কর্মসূচির জন্য কর্মপরিকল্পনাও তৈরি করা হয়েছে বলে জানিয়েছে তারা।

কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন জানিয়েছেন, যারা রেজিস্ট্রেশন করতে পারছে না তারাও এনআইডি দেখিয়ে টিকা নিতে পারবে। ওয়ার্ড কমিটিগুলোও এমনভাবে করা হচ্ছে যাতে করে ওই এলাকার কোনো বৃদ্ধ ব্যক্তি বা সাধারণ মানুষ টিকা থেকে বাদ না যায়।

কুমিল্লা সিভিল সার্জন ডা. মীর মোবারক হোসাইন জানান, কুমিল্লাতে ১২ জন এমপি আছেন তাদের সাথে আমাদের নিয়মিত যোগাযোগ হচ্ছে। তাছাড়া উপজেলা চেয়ারম্যানদের সাথেও আমাদের কথা হচ্ছে। আমাদের উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের যুক্ত করে এই টিকাদান কর্মসূচি বাস্তবায়নের চেষ্টা করছেন।

কুমিল্লার ১৭টি উপজেলায় ১৯৩টি ইউনিয়নে একযোগে গণটিকা কার্যক্রম শুরু হবে ৭ আগস্ট থেকে। তার আগেই রেজিষ্ট্রেশনকারীদের টিকা প্রদান সম্পন্ন করতে চায় জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply