ঘুমন্ত ভাই-বোনের শরীরে দাহ্য পদার্থ নিক্ষেপ

|

পটুয়াখালী প্রতিনিধি:

পটুয়াখালীতে ঘুমন্ত অবস্থায় ভাই-বোনের শরীরে দাহ্য পদার্থ নিক্ষেপ করে ঝলসে দিয়েছে দূর্বৃত্তরা। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাদেরকে বরিশাল শের-ই-বাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয় (শেবাচিম) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে সদর থানার ওসি আখতার মোর্শেদ নিশ্চিত করেছেন।

সোমবার (২ আগস্ট) দিবাগত রাতে এ ঘটনা ঘটে। পরিবারের পক্ষ থেকে ওই দাহ্য পদার্থকে অ্যাসিড বলে দাবি করা হলেও পরীক্ষা ছাড়া পুলিশ এটিকে অ্যাসিড বলতে চাচ্ছে না।

আহতরা হলেন পটুয়াখালী সদর উপজেলার মাদারবুনিয়া ইউনিয়নের চালিতাবুনিয়া গ্রামের মো. রাজা মিয়ার মেয়ে সুমাইয়া আক্তার (১৬) ও ছেলে মোহাম্মদ আলী (১২)।

পুলিশের একটি সোর্স জানায়, একই বিছানায় ঘুমিয়ে ছিল ভুক্তভোগী সুমাইয়া ও মোহাম্মদ আলী। গভীর রাতে কে বা কারা ঘরে প্রবেশ করে ভাই-বোনের শরীরে দাহ্য পদার্থ নিক্ষেপ করে পালিয়ে যায়। পরে চিৎকার শুনে লোকজন তাদের উদ্ধার করে পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। এসময় হাসপাতালের দায়িত্বরত চিকিৎসক প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন।

মাদারবুনিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. মুশফিকুল ইসলাম মিলন জানান, আহতদের বাবা রাজা মিয়া একটি হত্যা মামলার আসামি, পূর্ব শত্রুতার জেরেও কেউ এ ঘটনা ঘটিয়ে থাকতে পারে। তবে যে বা যারাই এ কাজ করুক, তাদেরকে আটক করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেছেন তিনি।

সদর থানার ওসি আখতার মোর্শেদ জানান, ঘটনা শুনে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে। তবে এটি অ্যাসিড বা অন্য কোনো দাহ্য পদার্থ কিনা সেটা যাচাইয়ের জন্য ডিবি পুলিশের ক্রাইম সিনের কাছে আলামত দেয়া হয়েছে। তাদের রিপোর্ট পেলেই বলা যাবে। ইতিমধ্যে তারা (ডিবি) পরীক্ষা নিরীক্ষা শুরু করেছে। এ ব্যপারে এখনও কেউ কোনো অভিযোগ করেনি বলেও জানান তিনি।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply