পুরো জাতীয় সংগীতের সুর চুরি, আনু মালিক ধরা পড়লো ২৫ বছর পর!

|

বলিউডের সংগীত পরিচালক আনু মালিক।

টোকিও অলিম্পিকে সোনা জিতলো ইজরায়েলের জিমন্যাস্ট। আর তারপর থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় তুমুল সমালোচনার শিকার বলিউডের সংগীত পরিচালক আনু মালিক।

আনু মালিকের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ হচ্ছে, তিনি ইজরায়েলের জাতীয় সংগীতের সুর চুরি করে ২৫ বছর আগে হিন্দি সিনেমা ‘দিলজালে’র ‘মেরা মুলক মেরা দেশ’ গানটিতে ব্যবহার করেছেন। এ গানটি যেন অন্য ভাষায় শুনলেন অলিম্পিকের ভারতীয় দর্শকরা!

এমনিতে আনু মালিকের বিরুদ্ধে সুর নকলের অভিযোগ আগেও উঠেছিল। তাই বলে একটি দেশের আস্ত জাতীয় সংগীত কপি করে দেওয়াটা একটু বাড়াবাড়ি বটে। কপি করা সুরে হিন্দি গানটাও আবার দেশাত্মবোধক। কিন্তু মজার ব্যাপার হলো, এতদিন এটি কেউ ধরতেই পারেনি। ধরা পড়লো ২৫ বছর পর!

এ খবর প্রকাশ্যে আসতেই হু হু করে ভাইরাল হয়েছে নেটদুনিয়ায়। নেটিজেনদের কটাক্ষ এবং তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছেন আনু মালিক। কেউ কেউ আনু মালিকের এমন সুর চুরি করার জন্য ‘নির্লজ্জ’ বলছেন। আবার কেউ ব্যাঙ্গ করে সরাসরি কমেন্ট করছেন, ‘এক দেশের জাতীয় সংগীত চুরি করে অন্য দেশের সিনেমার জাতীয়তাবাদী গানে সেই সুর ব্যবহার করেছেন আনু মালিক। এই দুর্দান্ত চুরির জন্য তাকে সোনার পদক দেওয়া উচিত!’

ইজরায়েলের জাতীয় সংগীত ‘হাতিকভাহ’ গানটি তৈরি হয়েছিল ১৯ শতকে। ১৯৪৮ সাল থেকে এটি ইজরায়েলের জাতীয় সংগীত।

ইউএইচ/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply