বাড়ির সামনে চুমুর দৃশ্য দেখতে চান না, টাঙালেন ‘নো কিসিং জোন’ বিজ্ঞপ্তি

|

প্রতীকী ছবি

ভারতের মুম্বাই শহরের এক আবাসিক এলাকার বাহিরে ‘নো কিসিং জোন’ অর্থাৎ এখানে চুমু খাওয়া যাবে না – নামে একটি বিজ্ঞপ্তি ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে। কারণ ওই আবাসিক এলাকার বাসিন্দাদের প্রকাশ্যে চুমু খাওয়া নিয়ে আপত্তি রয়েছে। খবর আনন্দবাজারের।

ওই এলাকার বাসিন্দাদের অভিযোগ, রোজই সন্ধ্যা হলে বাইরে এসে বসেন যুগলেরা। তারপর সেখানে নানারকম ‘অশ্লীলতা’ শুরু হয়। বাড়ির সামনে এমন দৃশ্য দেখতে চান না বলেই বিজ্ঞপ্তি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বাসিন্দারা। আবাসন এলাকাটির নাম সত্যম শিবম সুন্দরম সোসাইটি।

সত্যম শিবম সুন্দরম সোসাইটি পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, তারা কোনো ভাবেই প্রেমের বিরোধী নন। তারা অশ্লীলতার বিরুদ্ধে।

ওই এলাকার বাসিন্দা করণ ও রুচি পারেখ জানিয়েছেন, তারা একদিন বাড়ির জানলা দিয়ে দেখেন, রাস্তার ধারে তাদের ফ্ল্যাটের জানলার সামনেই ঘনিষ্ঠ হয়ে পড়েছেন এক যুগল। সেই ঘটনার একটি ভিডিও রেকর্ড করে তারা স্থানীয় থানায় পাঠিয়ে দেন। কিন্তু পুলিশ বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে দেখেনি বলেই অভিযোগ তাদের। সেই কারণেই তারা বিজ্ঞপ্তি দেয়ার সিদ্ধান্ত নেন।

বাসিন্দারা জানান, লকডাউনের সময় থেকে সন্ধ্যা হলেই গাড়িতে বা বাইকে করে যুগলরা এখানে আসেন। তারপর শুরু হয় তাদের গল্পগুজব, যা এক পর্যায়ে রূপ নেয় ঘনিষ্ঠতায়। এই কারণেই বিজ্ঞপ্তি টাঙানো হয়েছে। তাদের দাবি, বিজ্ঞপ্তি দেওয়ার পর পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে। এরপর থেকেই যুগলরা আসছেন, কিন্তু চুমু না খেয়ে বিজ্ঞপ্তির সামনে দাঁড়িয়ে সেলফি তুলে চলে যাচ্ছেন।

আবাসিক সোসাইটির পক্ষে আইনজীবী বিনয় অনুষ্কর জানিয়েছেন, আমরা শুধু ওই জায়গায় চুমু খেতে বারণ করেছি। আমরা প্রেমিক-প্রেমিকাদের বিরোধী নই, প্রেম করারও বিরোধী নই। আমরা অনেকবার ঘনিষ্ঠ ভাবে চুমু না খাওয়ার আবেদন জানিয়েছিলাম। তাতেও শেষ পর্যন্ত কাজ না হওয়ায় এই পদক্ষেপ করা হয়েছে।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply