বৃদ্ধ বাবা-মাকে গলাধাক্কা, ৯৯৯-এ ফোন

|

ময়মনসিংহ ব্যুরো:

জমি লিখে না দেওয়ায় বৃদ্ধ বাবা-মাকে গভীর রাতে ঘর থেকে বের করে দেয় ছেলে। খোলা আকাশের নিচে অসহায় বৃদ্ধ দম্পতি শেষপর্যন্ত ফোন করলেন জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯-এ।

ফোন পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে দেখে অসহায় অবস্থায় ওই বৃদ্ধ দম্পত্তি খোলা আকাশের নিচে বসে আছেন। পরে তাদের উদ্ধার করে ঘরে রেখে ওই ছেলেকে আটক করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। আটককৃত ছেলের কাছ থেকে দেড়শ গ্রাম গাঁজা উদ্ধার করে পুলিশ।

রোববার (১ আগস্ট) গাঁজা ব্যবসায় জড়িত থাকার অভিযোগে মামলা দিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে তাকে। ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার সিংরুইল ইউনিয়নের আগপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্র ও পুলিশ জানায়, বৃদ্ধ ভুক্তভোগী হামিদ আলীর ছেলে অভিযুক্ত গ্রামপুলিশ মো. জয়নাল আবেদিন (৩২)। সম্প্রতি জয়নালের গ্রামপুলিশের চাকরি হলে বেপরোয়া হয়ে ওঠে সে। জমিজমার বেশিরভাগ নিজের নামে লিখে দেওয়ার জন্য বাবা-মায়ের ওপর চাপ প্রয়োগ করে আসছিল জয়নাল। তা না হওয়ায় বাবা-মায়ের ওপর মানসিক নির্যাতন চালায় অভিযুক্ত জয়নাল।

জয়নালের মা সমেলা খাতুন জানান, গতকাল শনিবার রাতে স্বামীকে নিয়ে ঘুমিয়ে ছিলেন তিনি। এসময় ছেলে জয়নাল ঘরে ঢুকে করে অকথ্য ভাষায় গালাগাল করে আগামী দুই-এক দিনের মধ্যে নিজের প্রাপ্য জমি লিখে দেওয়ার জন্য বলে। অন্যথায় যে কোনো দুর্ঘটনা ঘটানোর হুমকি দেয় জয়নাল। এক পর্যায়ে জয়নাল তাদের দুজনকেই ঘর থেকে বের করে তালা লাগিয়ে দেয়। বৃদ্ধ দম্পতি বেশ কয়েক ঘণ্টা খোলা আকাশের নিচে কাটানোর পর পুলিশ এসে উদ্ধার করে তালা ভেঙে ঘরে প্রবেশ করায়।

নান্দাইল থানার উপপরিদর্শক মো. মনিরুজ্জামান জানান, ফোন পেয়ে থানার ওসির নির্দেশে জয়নালকে আটক করা হয়। এ অবস্থায় তার দেহ তল্লাশিকালে গাঁজা পাওয়া যায়, তদন্তে জানা যায় সে মাদক ব্যবসার সঙ্গে জড়িত। তাই তার বিরুদ্ধে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দেওয়া হয়েছে।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply