অজিদের সাথে ফিরে এলো কার্ডিফ মহাকাব্য

|

কার্ডিফে মোহাম্মদ আশরাফুলের হাতেই রচিত হয়েছিল অজি-বধ কাব্য। ছবি: সংগৃহীত

দুয়ারে কড়া নাড়ছে অস্ট্রেলিয়া সিরিজ। বাংলাদেশ অস্ট্রেলিয়ার লড়াইয়ে সব থেকে বেশি আবেগ কাজ করে ২০০৫ সালের কার্ডিফের সেই মহাকাব্য। যদিও ২০১৭ সালে টেস্টে হারানো হয়েছে অজিদের, তারপরও যারা তখনকার সময়ে সেই খেলা দেখেছেন তাদের বেগ এবং আবেগের লড়াইয়ে সবসময় জিতবে কার্ডিফের সেই স্মৃতির আবেগ।

সেদিন বিলেত বিভূঁইয়ে হলুদ অট্টালিকার দম্ভের বড়াইয়ে ফাটল ধরেছিল। অহমিকায় টইটম্বুর উড়তে থাকা বাজপাখিটা অনভিজ্ঞ শিকারীর কাঁচা হাতের নিশানায় মুহুর্তেই মাটিতে লুটিয়ে পড়েছিল। বাঘের গর্জন শুনেছিল সেদিন সারা বিশ্ব।

সকালের সূর্য সেদিন ঠিকঠিক দিয়েছিল সারাদিনের পূর্বাভাস। মাশরাফীর প্রথম প্রহরের আঘাতে রানের খাতায় শূন্য নিয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন গিলক্রিস্ট। এরপর পন্টিং এর অহমিকার দম্ভকে উড়িয়ে দেন তাপস বৈশ্য। তবে অজিদের ঘুরে দাঁড়ানোর গল্পে মার্টিন-ক্লার্কের জোড়া হাফ সেঞ্চুরি শোনাচ্ছিল মিছে মায়ার স্বপ্নভঙ্গের গান।

৭২ রানে ৩ উইকেট যাওয়ার পর মাথার উপর আড়াইশো রানের বোঝাটা যখন ভারী হতে থাকলো, তখনই ফুটতে শুরু করলো আশার ফুল। ম্যাকগ্রা-হগদের এক্সট্রা কাভারের রাস্তা চিনিয়ে, হাসিকে ফাইন লেগের চোরাগলির পথে কাঁদিয়ে, ক্যাসপ্রোভিচকে স্কয়ার লেগের সীমানায় পাঠিয়ে বুক চিতিয়ে আশরাফুলের ব্যাট জানান দিয়েছিল, আজ অন্যদিন, আজ ইতিহাস লেখার দিন। ক্যারিয়ারে প্রথম সেঞ্চুরি করা আশরাফুল যখন তুলির শেষ আঁচড় দিতে ব্যর্থ, মুদ্রার ও পিঠের বাস্তবতাটা তখন চোখ রাঙানিতে ব্যস্ত।

শেষ ওভারে ৭ রানের সমীকরণটা জন্ম দিয়েছিল রুদ্ধশ্বাস মুহূর্তের। ১৯ বছরের আফতাবের এক ছক্কা নাড়িয়ে দিয়েছিল ১২৮ বছরের দম্ভ আর অহমিকার সাম্রাজ্য। হাইলাইটসে সেই মুখগুলোর দিকে তাকালে এখনো বলে দেয়া যায়, কী ঝড়টাই না চলছিল অজিদের মনে!

ম্যাচজয়ের পর আফতাব আহমেদের উল্লাস। ছবি: সংগৃহীত

জয়ের আনুষ্ঠানিকতার পর কার্ডিফের সেই বুনো উল্লাস ছড়িয়ে পড়লো ১ লক্ষ ৪৭ হাজার ৫৭০ বর্গকিলোমিটারের এই ছোট্ট ভূখণ্ডে। এমন উপলক্ষ্য ছিল বহু কাঙ্ক্ষিত, বহু প্রতিক্ষিত। বহু সাধনার পর, বহু বিনিদ্র রজনী পাড় করে আসা সেই মুহূর্তগুলো যেন বিশ্বকাপের সোনালি ট্রফির চাইতেও স্বর্ণালী, রংধনুর ৭ রঙের চাইতেও বর্ণালী।

টাইগারদের অর্জনের গর্জন আরও হয়েছে, আরও হবে। কিন্তু বেগ আর আবেগের লড়াইয়ে জয়টা আবেগেরই হয়। মনের গহীন কোণে মৌন কম্পনটা তাই আজও কার্ডিফই দেয়।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply