ইসরায়েলের দখলকৃত এলাকায় আইসক্রিম বিক্রি করবে না বেন অ্যান্ড জেরিস

|

অধিকৃত পশ্চিম তীর এবং বিরোধপূর্ণ পূর্ব জেরুজালেমে আর আইসক্রিম বিক্রি করবে না বেন অ্যান্ড জেরিস।

বিশ্বখ্যাত কোম্পানি ইউনিলিভারের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান বেন অ্যান্ড জেরিস সম্প্রতি ঘোষণা দিয়েছে পশ্চিমতীরের দখলকৃত এলাকায় তারা আর আইসক্রিম বিক্রি করবে না। ফিলিস্তিনিরা বিষয়টিকে স্বাগত জানালেও ইসরায়েল বলছে এটি ইহুদিবিদ্বেষ।

বেন অ্যান্ড জেরিসের এমন ঘোষণায় ক্ষুব্ধ ইসরায়েলের আইসক্রিম বিক্রেতারা। কোম্পানিটিকে বয়কটের ঘোষণাও দিয়েছেন অনেকে। ঘটনাটি গড়িয়েছে জাতিসংঘ পর্যন্ত। বেন অ্যান্ড জেরিসের বিরুদ্ধে ইহুদিবিদ্বেষের অভিযোগ তুলেছে ইসরায়েল। তবে ফিলিস্তিনের দাবি, স্যালুট পাওয়ার মতো কাজ করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

আইসক্রিমের জন্য বিশ্বজুড়েই খ্যাত ইউনিলিভারের বেন অ্যান্ড জেরিস। চলতি সপ্তাহে বেন অ্যান্ড জেরিস ঘোষণা দেয়, অধিকৃত পশ্চিম তীর এবং বিরোধপূর্ণ পূর্ব জেরুজালেমে আর আইসক্রিম বিক্রি করবে না তারা। অবৈধ ইহুদি বসতির বিরুদ্ধে, এই প্রথম পদক্ষেপ নিলো এতোবড় কোনো প্রতিষ্ঠান।

জাতিসংঘে ফিলিস্তিনের স্থায়ী প্রতিনিধি রিয়াদ মানসুর বলছেন, দখল আর শান্তি একসাথে চলতে পারে না। কোনো কোম্পানি যখন আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করে তখন সমালোচনা প্রাপ্য নয়, তাকে স্যালুট করা উচিত। দখলদারিত্বের বিরুদ্ধে এভাবেই পদক্ষেপ নেয়া দরকার অন্যান্য প্রতিষ্ঠানেরও।

আর জাতিসংঘে ইসরায়েলের স্থায়ী প্রতিনিধি গিলাদ এরদান ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, এই পরিষদ ইরান-সিরিয়ার মতো ভয়াবহ মানবাধিকার লংঘনকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পারে না। অথচ, ইহুদি রাষ্ট্র হওয়ায় ইসরায়েলবিরোধী একতরফা ব্যবস্থা নিচ্ছে। সূর্যের আলোয় আইসক্রিম যেভাবে গলে যায় সেভাবেই এই দ্বিমুখী আচরণের সমাপ্তি হবে।

পশ্চিম তীরের দখলকৃত ভূমিতে ঘরবাড়ি তুলে থাকে প্রায় সাড়ে ৪ লাখ ইহুদি। ১৯৬৭ সালে যুদ্ধের পর থেকেই ধাপে ধাপে চলছে এ দখল।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply