আখাউড়ায় করোনা ভ্যাকসিন নিতে উপচে পড়া ভিড়, মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি

|

স্বাস্থ্যবিধি কিংবা দূরত্ব বজায় রাখছেন না ভ্যাকসিন নিতে আসা লোকজন।

আখাউড়া প্রতিনিধি :

করোনার প্রকোপ বাড়ার সাথে সাথে সরকার দ্বিতীয় দফায় টিকা নিতে জনগণকে উৎসাহিত করছে। সারাদেশের ন্যায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) টিকা কার্যক্রম ১৪ জুলাই থেকে শুরু হয়েছে। টিকা গ্রহণের প্রতিও আগ্রহ বাড়ছে সাধারণ মানুষের। কিন্তু স্বাস্থ্যবিধি কিংবা দূরত্ব বজায় রাখছেন না টিকা নিতে আসা লোকজন।

সোমবার (২৬ জুলাই) দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে আখাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নতুন ভবনের মূল ফটকের ডান পাশে কোভিড-১৯ টিকা নেয়ার বুথ স্থাপন করা হয়েছে। কিন্তু সেখানে স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষা করে গাদাগাদি করে দীর্ঘ লাইনে অপেক্ষা করছে ভ্যাকসিন প্রত্যাশীরা। আবার দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করেও অনেককে টিকা না নিয়ে ফিরে যেতে দেখা গেছে। এমন কী, করোনা উপসর্গ নিয়েও অনেক বয়োজ্যেষ্ঠ মানুষকে লাইনে দাঁড়িয়ে ভ্যাকসিনের জন্য অপেক্ষা করতে হয়েছে। এতে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়ছে বলে মনে করছে সচেতন মহল।

উপজেলার বিভিন্ন স্থান থেকে প্রতিদিন বিপুল সংখ্যক মানুষ ভিড় করছে ওই বুথের সামনে। প্রথম দিকে করোনা ভাইরাসের টিকা (ভ্যাকসিন) নিতে মানুষের তেমন আগ্রহ না থাকলেও এখন প্রতিদিন টিকা নিতে গড়ে দেড় শতাধিক মানুষ ভিড় জমাচ্ছেন। স্বাস্থ্যকর্মীদের কোন নির্দেশনাই মানছে না কেউ। টিকা দিতে তাই হিমশিম খাচ্ছেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দায়িত্বপ্রাপ্ত স্বাস্থ্যকর্মীরা।

আখাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ডা. শ্যামন চন্দ্র ভৌমিক যমুনা টেলিভিশনকে বলেন, করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) দ্বিতীয় দফায় ভ্যাকসিন নিতে প্রতিদিনই এখানে ভিড় বাড়ছে। আকস্মিকভাবে চাপ বেড়ে যাওয়ায় স্বাস্থ্যকর্মীদের হিমশিম খেতে হচ্ছে। তিনি আরো জানান, আমাদের লোকবল কম। তবে ভ্যাকসিন নিতে আসা লোকজন যদি সচেতন না হয় তাহলে করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি থাকছেই।

প্রসঙ্গত, আখাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এখন পর্যন্ত ১ হাজার ১৬২ জন দ্বিতীয় দফায় ভ্যাকসিন নিয়েছেন। প্রতিদিন গড়ে দেড়শ মানুষ ভ্যাকসিন গ্রহণ করছেন বলে জানা গেছে।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply