অলিম্পিকে সঠিকভাবে মাস্ক না পরায় পাকিস্তানের পতাকাবাহকদের সমালোচনা

|

সঠিকভাবে মাস্ক না পরে অলিম্পিকে পাকিস্তানের পতাকা বহন করছেন দুই অ্যাথলেট। ছবি: সংগৃহীত।

টোকিও অলিম্পিকের এই আসরে সবসময় মাস্ক পরে থাকার ঘোষণা থাকলেও অলিম্পিকের উদ্বোধনী আয়োজনের মঞ্চে মাস্ক ঠিকঠাক না পরে দেশের পতাকা বহন করে আলোচনার জন্ম দিয়েছেন পাকিস্তানের অলিম্পিক দলের নেতৃত্বে থাকা দুই অ্যাথলেট। অলিম্পিকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তাদের ঠিকঠাক মাস্ক পরতে দেখা যায়নি।

যদিও অলিম্পিক কমিটি করোনা মহামারীর মাঝে আয়োজিত এবারের আসরে জোরালোভাবে সবাইকে পুরো ইভেন্টে সবসময় মাস্ক পরে থাকতে বলেছে। তারপরও পাকিস্তান ছাড়াও কার্গিজিস্তান এবং তাজিকিস্তানের অ্যাথলেটদেরও অলিম্পিকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মাস্ক ছাড়া দেখা গেছে।

অলিম্পিকের উদ্বোধনী আয়োজনে পাকিস্তানের অলিম্পিক দলের অন্য সদস্যরা মাস্ক ঠিকঠাক পরে থাকলেও পতাবাহক দুইজনের মাস্ক ছিলো নামানো। পাকিস্তানের হয়ে ব্যাডমিন্টন খেলতে আসা নারী অ্যাথলেট ম্যাহোর শেহজাদ একেবারেই মানেননি মাস্ক পরিধানের শিষ্টাচার। তার মাস্ক নাক মুখ থেকে নেমে ঠাঁই পেয়েছিলো থুতনিতে।

অন্যদিকে, দেশটির শ্যুটার খলিল আক্তার মাস্ক দিয়ে তার মুখ ঢেকে রাখলেও নাক ছিল উন্মুক্ত। যা কিনা অলিম্পিক কমিটির বেঁধে দেওয়া করোনা স্বাস্থ্যবিধির সুস্পষ্ট লঙ্ঘন।

অলিম্পিক কমিটি বলছে, যেখানে করোনার জন্য এবারের আসর শুরু করতেই অনেক দেরি হয়ে গেছে সেখানে অ্যাথলেটরা যদি স্বাস্থ্যবিধি যথাযথভাবে না মানেন তবে নিরাপদে আসর শেষ করা কঠিন হবে।

জাপান অলিম্পিক ভিলেজকে শুরু থেকেই করোনামুক্ত রাখতে জোরালোভাবে কাজ করে আসছে। একদিকে যেমন তারা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ক্ষেত্রে নানা কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করেছে তেমনি অন্যদিকে নিশ্চিত করেছে অ্যাথলেটদের সামাজিক দুরত্ব। টোকিও অলিম্পিকের উদ্বোধনী দিনেও সামাজিক দুরত্ব মেনে অ্যাথলেটদের অংশ নিতে দেখা গেছে।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply