পর্নকাণ্ডে গ্রেফতার স্বামী; বিপাকে শিল্পার ব্যক্তিগত ও পেশাগত জীবন

|

শিল্পা শেঠি ও তার স্বামী রাজ কুন্দ্রা।

বলিউড অভিনেত্রী শিল্পা শেঠি ও তার স্বামী রাজ কুন্দ্রাকে সামাজিকমাধ্যমে সব সময় দেখা যায় এক সুখী দম্পতির জীবনযাপনের দৃশ্যে। কিন্তু গত ক’দিনে সব কিছু বদলে গেছে জনপ্রিয় এই অভিনেত্রীর জীবন। তার স্বামী রাজ কুন্দ্রাকে পর্নোগ্রাফি ফিল্ম তৈরির অভিযোগে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এতে করে বিপাকে পড়েছে অভিনেত্রীর ব্যক্তিগত ও পেশাগত জীবন।

সুনির্দিষ্ট প্রমাণসহ পর্নোগ্রাফি ফিল্ম তৈরির অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে শিল্পা শেঠির স্বামী রাজ কুন্দ্রাকে। ১৯ জুলাই দিবাগত রাতে তাকে গ্রেফতার করে মুম্বাই পুলিশ। যে মামলায় ইতিমধ্যে পুলিশের জালে ধরা পড়েছেন রাজ কুন্দ্রাসহ আরো ৯ জন।

লকডাউনের সময় শ্যালক প্রদীপ বক্সীর কোম্পানি কেনরিন লিমিটেডের সঙ্গে হাত মিলিয়ে পর্নোগ্রাফির ব্যবসা শুরু করেন রাজ। তারপর ইউকে-তে ক্লিপ পাঠাতেন প্রদীপ নামের ব্যক্তির কাছে। ‘হটসটশ’ নামের একটি অ্যাপ তৈরি করেছিলেন তারা। সেখানে আপলোড করা হতো এসব অশ্লীল ভিডিও। এসব কিছুর যথাযথ তথ্য প্রমাণ পেয়েছে মুম্বাই পুলিশ।

রাজ-শিল্পার বাড়ি থেকে মিলেছে ৭০টিরও বেশি অশ্লীল ভিডিওর সার্ভার। অভিযোগের আঙুল উঠেছিল শিল্পার দিকেও। জীবনের এই মোড় ঘোরানো পরিস্থিতেই মুক্তি পেলো শিল্পার সম্প্রতি মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমা ‘হাঙ্গামা ২’।

অজস্র বিতর্কেও মাঝেও পুরোপুরি পাল্টে যায়নি তার পেশাগত জীবনের গতিপথ। শিল্পা ও তার বোন শামিতা শেঠি শিল্পার সম্প্রতি মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমার পোস্টার শেয়ার করে সিনেমা দেখার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন সবাইকে।

স্বামীর কুকর্মের জন্য ভুক্তভোগী শিল্পা। অভিনেত্রী এখন ছেলে সন্তান নিয়ে নিজের বাড়ি ছেড়ে তার বোন শামিতা শেঠির বাড়িতে গিয়ে উঠেছেন। এদিকে ভারতীয় রিয়েলিটি শো ‘সুপার ড্যান্সার’-এর চলছে চতুর্থ সিজন। জানা যায়, এই রিয়েলিটি শো থেকে শিল্পাকে বাদ দিয়ে কারিশমা কাপুরকে বিচারকের দায়িত্বে নেয়া যাবে।

এছাড়াও আদালত রাজকে ২৭ জুলাই পর্যন্ত পুলিশ হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেন। অশ্লীল ভিডিও কেলেঙ্কারিতে রাজ গ্রেফতার হওয়ার পরেই সন্দেহের অভিমুখ ঘুরে গিয়েছিল শিল্পার দিকে।

প্রশ্ন উঠেছিল, স্বামীর ব্যবসার সঙ্গে কি জড়িত ছিলেন শিল্পাও? আর যদি তা নাও থাকেন, তিনি কি রাজের এই কার্যকলাপ সম্পর্কে কিছুই জানতেন না? যদি জেনে থাকেন, তা হলে আটকাননি কেন?

এনএনআর/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply