চালু হলো ক্রিকেটের আরও শর্টার ভার্শন ‘দ্যা হান্ড্রেড’

|

ছবি: সংগৃহীত

ক্রিকেটকে আরও উত্তেজনাপূর্ণ করতে টি-টোয়েন্টির পর এবার ক্রিকেট বিশ্ব পরিচিত হল আরও শর্টার ভার্শন অফ ক্রিকেটের সাথে, যার নাম ‘দ্যা হান্ড্রেড’।

গত ২২ জুলাই থেকে ইংল্যান্ডে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়েছে হান্ড্রেড বলের এই ফ্রাঞ্চাইজি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট। যেখানে পুরুষ ও নারী ফ্রাঞ্চাইজি দলগুলোতে আছে ৮ টি দেশের ক্রিকেটার। মোট ৩৪ টি ম্যাচের এই টুর্নামেন্টের প্রথম ৩২ ম্যাচ হবে প্লে অফ রাউন্ড মেথডের আওতায়।

ক্রিকেটের সাধারণ নিয়মের সাথে তুলনা করলে বেশ কিছু পরিবর্তন এসেছে নতুন এই শর্টার ভার্সন ক্রিকেটে। এক নজরে দেখে আসবো সেই নতুন নিয়মগুলো।

এই ফরম্যাটে নেই কোন ওভারের হিসেব। প্রত্যেকটি ইনিংস হবে ১০০ বলের। যেখানে প্রতি ১০ বল পর পর ফিল্ডিং সাইড প্রান্ত পরিবর্তন করবে। এছাড়াও অধিনায়কের সিদ্ধান্ত মোতাবেক একজন বোলার টানা ৫টি বা ১০টি করে বল করার সুযোগ পাবে। আর প্রত্যেক বোলারের জন্য বরাদ্দ সর্বোচ্চ ২০টি বল।

দুই ইনিংসেই ফিল্ডিং সাইডের জন্য আছে ২ মিনিটের স্ট্র্যাটেজিক টাইম আউট। এই পাওয়ার হিটিং ক্রিকেটের পাওয়ার প্লে হবে প্রথম ২৫ বলে, যেখানে মাঠের ৩০ গজের বাইরে দুইজন ফিল্ডার থাকতে পারবে। সব মিলিয়ে ম্যাচের সময় হবে দুই ঘণ্টা ৩০ মিনিট।

উল্লেখ্য, ২০২০ সালে ফ্রাঞ্চাইজি দলের প্রাথমিক তালিকায় ছিলো বিশ্ব সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের নাম। কিন্তু করোনা মহামারিতে টুর্নামেন্ট পিছিয়ে গেলে বাদ দেয়া হয় সেই প্রাথমিক তালিকা। ফলে জাতীয় দলের হয়ে খেলতে থাকা সাকিবের অংশ নেয়া হচ্ছে না ইংল্যান্ডে আয়োজিত ক্রিকেট বিশ্বে প্রথম ১০০ বল ক্রিকেটের ফ্রাঞ্চাইজি টুর্নামেন্টে।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply