তালেবানদের তৎপরতা বৃদ্ধিতে রণসাজে তাজিকিস্তান

|

আফগান সীমান্তে সেনা উপস্থিতি বাড়িয়েছে তাজিকিস্তান।

আফগানিস্তানে তালেবানদের তৎপরতা বাড়ায় নিজেদের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বিগ্ন প্রতিবেশী তাজিকিস্তান। তালেবান জিহাদিদের প্রবেশ ঠেকাতে সীমান্তে নিরাপত্তা বাড়িয়েছে দেশটি। মোতায়েন করেছে ২০ হাজার অতিরিক্ত সেনা সদস্য। নিজেদের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় সেনা মহড়ার মাধ্যমে নিজেদের রণপ্রস্তুতির শোডাউনও করেছে তাজিকিস্তান।

সারি সারি ট্যাংক, মর্টার, সাঁজোয়া গাড়ির বহর দেখে মনে হবে যেন যুদ্ধের দামামা বেজে গেছে। বিশাল সেনা মহড়ায় এভাবেই নিজেদের সামরিক সামর্থ্য আর রণপ্রস্তুতি প্রদর্শন করলো তাজিকিস্তান।

দেশটির সক্রিয় আর রিজার্ভ সব ধরণের সেনার জন্যই বাধ্যতামূলক ছিলো এই মহড়ায় অংশগ্রহণ। সব মিলিয়ে তাজিকিস্তানের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় সামরিক আয়োজনে অংশ নেয় দেশটির সর্বমোট দুই লাখ ৩০ হাজার সেনা।

আফগানিস্তানের সাম্প্রতিক ঘটনাপ্রবাহের মধ্যে, তাজিক প্রেসিডেন্ট এমোমালি রাখমনের নির্দেশে আয়োজিত হয় এই সামরিক শোডাউন। দক্ষিণের প্রতিবেশী, আফগানিস্তানের সাথে ১৩৫৭ কিলোমিটার দীর্ঘ সীমান্ত রয়েছে তাজিকিস্তানের। চলতি মাসেই সীমান্তে আফগানদের একটি সেনাচৌকি দখলে নেয় তালেবান। আফগান নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যারা পালাতে বাধ্য হয় তাজিকিস্তানে।

তালেবানদের তৎপরতা বাড়ায় নিজেদের ভূখণ্ডেও হামলা বা নাশকতার শঙ্কা দুশানবে’র। নিজেদের সুরক্ষার জন্য তাই নানান প্রস্তুতি নিচ্ছে দুশানবে। আফগান সীমান্তে নিরাপত্তার জন্য মোতায়েন করেছে ২০ হাজার সেনা। তালেবানকে ঠেকানোর প্রস্তুতিতে তাজিকিস্তানকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছে রাশিয়া। মস্কো থেকে বিমানে পাঠানো হচ্ছে অত্যাধুনিক সমরাস্ত্র। আগামী মাসে যৌথ মহড়া আয়োজনের পরিকল্পনাও আছে দু’দেশের।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply