নীলফামারীতে পুলিশ কর্মকর্তাকে মারপিট, দুই ভাই গ্রেফতার

|

আতিফ হোসেন। ছবিঃ সংগৃহীত

নীলফামারী প্রতিনিধি:

নীলফামারীর সৈয়দপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আতাউর রহমানকে মারপিট ও পোশাক ছিঁড়ে দেয়ার ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় আতিফ হোসেন (২৬) ও আতিক হোসেন (২৪) কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তারা দু’জন সৈয়দপুর শহরের ব্যবসায়ী আলতাফ হোসেনের ছেলে।

পুলিশ জানিয়েছে, কঠোর লকডাউনের প্রথম দিন শুক্রবার (২৩ জুলাই) রাত সাড়ে ৮টার দিকে সৈয়দপুর বিমানবন্দর সড়কের সিএসডি মোড়ে বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালিয়ে যাচ্ছিল আতিফ হোসেন। এ সময় তার ভাই আতিক হোসেন গাড়িতে বসা ছিলো। বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালানোর অভিযোগে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যরা তার গাড়ির গতিরোধ করে।

বিধিনিষেধ অমান্য করার অভিযোগে ঘটনাস্থলেই তাকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে হাজির করা হলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) রমিজ আলম তাকে ১ হাজার টাকা জরিমানা করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে জরিমানা পরিশোধ না করেই আতিফ হোসেন গাড়ি নিয়ে চলে যায়।

এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্দেশে প্রায় দুই কিলোমিটার পথ ধাওয়া করে তাকে আটক করে পুলিশ। এ সময় গাড়ি থেকে নেমে আতিফ হোসেন কর্তব্যরত পুলিশ পরিদর্শক আতাউর রহমানের উপর চড়াও হয়ে মারপিট করে এবং পোশাক ছিঁড়ে ফেলে।

সৈয়দপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল হাসনাত খান বলেন, ভ্রাম্যমাণ আদালত অমান্য, পুলিশের গায়ে হাত তোলা ও লকডাউন ভাঙার মতো একাধিক অপরাধ সংঘটিত করার কারণে মামলা দায়ের করার নির্দেশ দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রমিজ আলম। আদালতের নির্দেশে শুক্রবার রাতেই উপ -পরিদর্শক রেজাউল ইসলাম বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply