চট্টগ্রামে কাঁচা চামড়া নিয়ে অনিশ্চয়তায় আড়তদাররা

|

চট্টগ্রামে চামড়া নিয়ে অনিশ্চয়তায় আড়তদাররা।

চট্টগ্রামে সংগৃহীত সাড়ে ৩ লাখ কাঁচা চামড়া নিয়ে অনিশ্চয়তায় আড়তদাররা। বন্দরনগরীতে একটি ছাড়া সব ট্যানারি বন্ধ, একমাত্র ভরসা ঢাকার ট্যানারি মালিকরা। তাদের কাছে অনেকটাই জিম্মি চট্টগ্রামের আড়তদাররা। বাকিতে বিক্রি করতে বাধ্য হন তারা, পাশাপাশি এবারও ন্যায্য দাম পাওয়া নিয়ে শঙ্কায় আছে ব্যবসায়ীরা।

আড়তদারদের হিসেবে, করোনা মহামারির মধ্যেও এখানকার অর্ধশতাধিক ব্যবসায়ী চামড়া সংগ্রহে লগ্নি করেছে অন্তত ২৫ কোটি টাকা। কিন্তু এবারও ট্যানারি মালিকদের কাছ থেকে ন্যায্য দাম পাওয়া নিয়ে শঙ্কায় আছে তারা।

চট্টগ্রাম কাঁচা চামড়া আড়তদার সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ বলেন, ট্যানারি মালিকদের প্রতি আমাদের আস্থা আছে। আশাকরি আগে যে সমস্যা ছিলো সেটা এবার কেটে যাবে, তারা আমাদের সহযোগিতা করবে।

চট্টগ্রামে ট্যানারির সংখ্যা কমতে কমতে ২২টি থেকে একটিতে নেমেছে, তাই আড়তদারদের নির্ভর করতে হয় ঢাকার ট্যানারি মালিকদের উপর। বেশিরভাগ সময় তারা বাকিতে কিনে পাওনা দেয়না।

চট্টগ্রাম কাঁচা চামড়া আড়তদার সমিতির সহ সভাপতি আবদুল কাদের বলেন, বাকীতে দিতে হয় কারণ লবনজাত করে চামড়া দুই থেকে আড়াই মাস রাখা যায়। এরপর চামড়া মান নষ্ট হয়ে যায়। তখন ট্যানারি মালিকরা নিবেনা।

তবে, এবার পাঁচটি প্রতিষ্ঠানকে ওয়েট ব্লু চামড়া রফতানির অনুমতি দেয়ায় কিছুটা আশার আলো দেখছেন চট্টগ্রামের ব্যবসায়ীরা। চট্টগ্রামে এখান পর্যন্ত সাড়ে তিন লাখ পিস কাঁচা চামড়া সংগ্রহ হয়েছে বলছেন আড়তদাররা।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply