শাহরুখের চড় খেয়েই কি হানি সিংয়ের ক্যারিয়ার শেষ?

|

শাহরুখ খান একটি অনুষ্ঠানে হানিকে সঙ্গে নিয়ে গিয়েছিলেন। সেখানেই তাদের দ্বন্দ্ব শুরু হয়। সংগৃহীত ছবি।

কোনো গডফাদারের প্রভাব ছাড়াই বলিউডে এসেছিলেন হানি সিং, হয়ে উঠেছিলেন বলিউডের সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক পাওয়া প্রথম সারির গায়কদের মধ্যে এক জন। অমিতাভ বচ্চন, শাহরুখ খান, সালমান খানের সাথেও কাজ করেছেন তিনি। ক্যারিয়ার এমন তুঙ্গে থাকা অবস্থায়ই জনপ্রিয় এই গায়ক আচমকা রহস্যজনকভাবে ইন্ডাস্ট্রি থেকে গায়েব হয়ে যান। টানা দুবছর তার কোনো খোঁজ ছিল না।

ক্যারিয়ারের শীর্ষে থাকা অবস্থায় শাহরুখের খুব ঘনিষ্ঠ হয়ে উঠেছিলেন হানি। ২০১৪ সালে শাহরুখ খানের ‘হ্যাপি নিউ ইয়ার’ ছবি বের হয়। তার ইচ্ছে ছিলো ছবিতে হানির একটি গান রাখার। কিন্তু সুরকারের পছন্দ না হওয়ার তা রাখতে পারেননি তিনি। তবে ব্যাপারটাকে হালকা করার জন্য শাহরুখ ছবির প্রচারমূলক অনুষ্ঠানে বন্ধু হানিকে সঙ্গে নিয়ে যান।

ওই অনুষ্ঠানে শাহরুখের সঙ্গে তর্ক জুড়ে দিয়েছিলেন হানি। ঘটনাক্রমে হানি সিংকে প্রকাশ্যে চড় মেরে বসেন শাহরুখ খান। আর এরপর শুধু শাহরুখের জীবন থেকেই নয়, বলিউড থেকেও গায়েব হয়ে গিয়েছিলেন হানি সিং। টানা দুই বছর তার কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি। কয়েকজন ছাড়া কারও সঙ্গে কথাও বলতেন না তিনি। গান গাওয়াও ছেড়ে দিয়েছিলেন।

এরকমই সময় একদিন মুখে অক্সিজেন মাস্ক লাগানো হানির একটি ছবি ভাইরাল হয়। ছবি দেখে হানির অনুরাগীদের মধ্যে প্রচুর প্রশ্নের দেখা দেয়। পরে জানা যায়, একটি হাসপাতালে হানি ভর্তি ছিলেন তখন। অতিরিক্ত মাদক সেবন করে অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন তিনি।

পরে এক সাক্ষাৎকারে হানি জানিয়েছিলেন, তিনি বাইপোলার ডিজঅর্ডারে আক্রান্ত হয়েছিলেন তিনি। তাই সবকিছু থেকে দূরে ছিলেন তিনি। তবে হানির কথাগুলো বিশ্বাস করেছেন খুব কম মানুষই। অধিকাংশ ভক্তেরই ধারণা শাহরুখের সাথে ওই ঘটনাই তাকে ইন্ডাস্ট্রি থেকে দূরে সরিয়ে দিয়েছিল।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply