ধর্ষণের ভিডিও ধারণ ও ভাইরাল করার হুমকি; স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা

|

কাউখালী থানা, পিরোজপুর।

পিরোজপুর প্রতিনিধি:

পিরোজপুরের কাউখালী উপজেলায় এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের ভিডিওধারণ ও সেই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল করার হুমকি দেওয়ায় আত্মহত্যা করেছে ওই স্কুলছাত্রী। এ ঘটনায় নবম শ্রেণিতে পড়ুয়া স্কুলছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার রাতে কাউখালী থানায় ৫ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছেন। মামলা ২ নং আসামী শাকিল হোসেনকে (২৩) আটক করেছে পুলিশ।

মামলা ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, কাউখালী উপজেলার ছোট বিড়ালজুড়ি গ্রামের নবম শ্রেণিতে
পড়ুয়া স্কুলছাত্রীকে একই উপজেলার কাঠালিয়া গ্রামের সজিব খান (২৪), মোঃ সাকিল (২৩)
আকাশ মীরসহ (২৪) ৪-৫ জন প্রায়ই উত্ত্যক্ত করতো। তারা গত ১৬ জুলাই মোবাইল ফোনে
স্কুলছাত্রীকে ডেকে স্থানীয় হাবিব মীরের পরিত্যক্ত বাড়িতে নিয়ে যায়। সেখানে স্কুলছাত্রীকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে এবং দৃশ্যগুলো মোবাইলে ভিডিও ধারণ করে রাখে। এরপর তারা স্কুলছাত্রীকে তাদের সাথে অনৈতিক সম্পর্ক চালিয়ে যাওয়ার প্রস্তাব দেয়। আর হুমকি দেয় তাদের প্রস্তাবে রাজি না হলে ধর্ষণের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল করে দেওয়া হবে।

এ হুমকিতে লোকলজ্জার ভয়ে সেই স্কুলছাত্রী ১৬ জুলাই রাতে ঘরের বারান্দায় ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দেয়। প্রতিবেশীরা টের পেয়ে তাকে উদ্ধার করে বরিশাল শের-ই-বাংলা
মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে ১৭ জুলাই চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মারা যায়।

কাউখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বনী আমিন জানান, স্কুলছাত্রীকে আত্মহত্যার প্ররোচনায়
তার বাবা বাদী হয়ে ৫ জনকে নামীয় ও কয়েকজনকে অজ্ঞাত আসামী করে মামলা করেছে। মামলার ২ নং আসামী শাকিল হোসেন (২৩) কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply