যা আলোচনা হলো এরদোগান ও শি জিন পিং এর ফোনালাপে

|

গতকাল মঙ্গলবার দ্বিপাক্ষিক বিভিন্ন ইস্যুতে ফোনালাপ করেন শি ও এরদোগান।

উইঘুর মুসলিমদের ওপর নির্যাতন ও তাদের অধিকার সংরক্ষণ প্রসঙ্গে চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিন পিংয়ের সাথে টেলিফোনে আলোচনা করেছেন তুরস্কের রাষ্ট্রপতি রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান। গতকাল মঙ্গলবার (১৩ জুলাই) দুই নেতার মধ্যে এই ফোনালাপ হয় বলে নিশ্চিত করেছে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট কার্যালয় ব্যুরো। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের সূত্রে জানা গেছে যে, মি. শি এর সাথে দ্বিপাক্ষিক আরও নানা বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে তুর্কি রাষ্ট্রপতির।

২০২১ এর এপ্রিলে তুরস্কের আইনসভায় উইঘুর মুসলিমদের প্রতি চীনের নির্যাতনমূলক নীতি নিয়ে তুরস্কের একজন বিরোধী দলীয় নেতার মন্তব্যের পর ইস্তাম্বুলস্থ চীন দূতাবাস মন্তব্য করেছিলো যে, যেকোনো সমালোচনার যথাযোগ্য জবাব দেয়ার অধিকার তাদের রয়েছে। চীনা দূতাবাসের এমন অবস্থানের পর রাষ্ট্রদূতকে তলব করে তুরস্কের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এতে গত ৪ মাস যাবত শীতল কূটনৈতিক সম্পর্ক বিরাজমান ছিল দুই দেশের মধ্যে। এমন টানাপোড়েনের মাঝেই প্রেসিডেন্ট শি জিন পিংয়ের সঙ্গে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট টেলিফোনে কথা বললেন।

ফোনালাপে এরদোগান বলেন, তুরস্ক চীনের সার্বভৌমত্বের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তবে চীনের আর দশজন সাধারণ নাগরিকের মত দেশটিতে উইঘুর মুসলিমদেরও শান্তিতে বসবাস তুরস্কের জন্য গুরুত্বপূর্ণ।

তুর্কি রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের বিবৃতিতে আরও বলা হয় যে, ঐতিহাসিক এ ফোনালাপে দুই নেতা তুরস্ক ও চীনের মধ্যকার বাণিজ্যিক ও কূটনীতিক সম্ভাবনা, প্রযুক্তি, জ্বালানি, পরিবহন ও স্বাস্থ্য বিষয়ে কথা বলেছেন। এছাড়াও দ্বিপাক্ষিক-আঞ্চলিকসহ আরও নানা ইস্যু নিয়ে কথা হয়েছে তাদের।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply