সাদুল্যাপুরে ‘ক’ সেটের পরিবর্তে ‘খ’ সেটে এসএসসি পরীক্ষা

|

গাইবান্ধা প্রতিনিধি:
গাইবান্ধার সাদুল্যাপুর বহুমূখী পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত ভুগোল ও পরিবেশ (সৃজনশীল) বিষয়ে ‘ক’ সেটের পরিবর্তে ‘খ’ সেট প্রশ্নপত্র দিয়ে পরীক্ষা নেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ফলে ‘খ’ সেট প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা দিয়ে ফলাফল বিপর্যয়ের আশঙ্কায় পড়েছেন ২৫১ পরীক্ষার্থী। সংশ্লিষ্ট কেন্দ্র সচিবের অদক্ষতা ও অবহেলার কারণে এ ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ পরীক্ষার্থী, শিক্ষক ও অভিভাবকদের।

এসএসসি পরীক্ষার শেষ দিন ছিলো শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারী)। শেষ পরীক্ষা দিয়ে অনেকটা স্বস্তির আশায় ছিলো শিক্ষার্থীরা। কিন্তু সেই স্বস্তির পরিবর্তে চরম হতাশা আর দুশ্চিন্তায় পড়েছে সাদুল্যাপুর উপজেলার ২৫১ জন পরীক্ষার্থী। ভূগোল ও পরিবেশ বিষয়ে ‘ক’ সেটের পরিবর্তে ‘খ’ সেটে পরীক্ষা দিয়ে বিপাকে পড়েছে মানবিক শাখা থেকে অংশ নেওয়া পরীক্ষার্থীরা।

জানা গেছে, সাদুল্যাপুর উপজেলায় এবারের চলতি এসএসসি পরীক্ষার জন্য একটি দাখিল কেন্দ্রসহ মোট ৬টি পরীক্ষা কেন্দ্র রয়েছে। এরমধ্যে সাদুল্যাপুর উপজেলা শহরেই দুটি কেন্দ্র অবস্থিত। পরীক্ষার দিনে পরীক্ষা কেন্দ্রগুলোতে ‘ক’ সেটের প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা নেওয়া হয়। কিন্তু ব্যতিক্রম ঘটে সাদুল্যাপুর উপজেলা শহরের প্রাণ কেন্দ্রে অবস্থিত সাদুল্যাপুর বহুমূখী পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে। সেখানে ভূগোল ও পরিবেশ বিষয়ে অংশ নেয় উপজেলার ১০টি বিদ্যালয়ের ২৫১ জন পরীক্ষার্থী।

শিক্ষক ও পরীক্ষার্থীদের অভিযোগ, দিনাজপুর বোর্ডের আওতাধীন সকল কেন্দ্রে ‘ক’ সেটের প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা নেওয়ার জন্য বোর্ড নির্দেশনা দেয়। কিন্তু কেন্দ্রে সচিবের দায়িত্বে থাকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এনশাদ আলী সরকারের অবেহেলা ও অদক্ষতার কারণে ‘ক’ সেটের পরিবর্তে হল রুমের শিক্ষকদের হাতে দেন ‘খ’ সেটের প্রশ্নপত্র। যথা সময়ে শিক্ষকরা প্রশ্নপত্র পরীক্ষার্থীদের হাতে দেয়। এরপর পরীক্ষার্থীরা ‘খ’ সেটের প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা দিয়েই বের হয়ে আসেন। পরে পরীক্ষার্থীরা শিক্ষকসহ অন্য কেন্দ্রের পরীক্ষার্থীদের সাথে আালাপ-আলোচনার সময়ে এ ভুলটি ধরা পড়ে। বিষয়টি জানাজানি পর ফলাফল কি হবে এ নিয়ে চরম হতাশায় হয়ে পড়েন পরীক্ষার্থীরা।

সাদুল্যাপুর কেএম পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোস্তাফিজার রহমান ফারুক বলেন, ‘কেন্দ্রের দায়িত্বরত সচিব, সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের অবহেলা ও অদক্ষতার কারণে ‘ক’ সেটের পরিবর্তে ‘খ’ সেটের প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা নেওয়া হয়েছে। এমন ভুলের সাথে জড়িত অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন। সেই সাথে বিষয়টি সহানুভূতির সঙ্গে দেখে উত্তরপত্র বিবেচনার জন্য সংশ্লিষ্ট শিক্ষা বোর্ড পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের প্রতি দাবি জানান।

কেন্দ্র সচিবের দায়িত্বে থাকা সাদুল্যাপুর বহুমূখী পাইলট মডেল উচ্চ বালক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এনশাদ আলী সরকার ভুলক্রমে ভিন্ন সেটের প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা নেওয়ার হওয়ার কথা স্বীকার করলেও বোর্ড কর্তৃপক্ষের পাঠানো এসএমএস’র (মোবাইল ম্যাসেজ) অস্পষ্টতাকেই দায়ি করে বলেন, ‘বিষয়টি বোর্ডকে অবগত করা হয়েছে। বোর্ডের সিদ্ধান্তে থানায় সাধারণ ডায়েরী (জিডি) করে একটি পত্রসহ খাতাগুলো বোর্ডে পৌঁছাতে হবে। তাছাড়া এ নিয়ে ফলাফল বিপর্যয়ের কোন কারণ নেই। তাই পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকদের উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই’।

এ বিষয়ে সাদুল্যাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মোছা. রহিমা খাতুনের সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি বলেন, ভুল তো হয়েছে, সেটার সমাধানও করা হবে। ইতোমধ্যে বিষয়টি সংশ্লিষ্ট বোর্ড কর্তৃপক্ষকে অবগত করা হয়েছে। এছাড়া কেন এমন ভুল হলো তা খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়া হবে’।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply