সম্পূর্ণ অজানা প্রজাতির মানুষের ফসিলের সন্ধান

|

ইসরায়েলে মিললো ১ লাখ ৩০ হাজার বছর আগের মানুষের ফসিলের সন্ধান। বিজ্ঞানীরা বলছেন, এই প্রজাতির আদিম মানুষগুলোর সাথে বর্তমান মানুষের গঠনের কোন মিল নেই। এতো দিন তাদের অজানাই ছিল এ প্রজাতি। প্রত্নতাত্ত্বিকরা বলছেন, এই আবিষ্কারের মাধ্যমে মানব বিবর্তনের রহস্যময় সব তথ্য বেরিয়ে আসবে।

ইসরায়েলের রামলা শহরের কাছে প্রত্নতাত্ত্বিক খনন কাজ চলার সময় সন্ধান মেলে এই হাড়গুলোর। এরপরই তা নিয়ে শুরু হয় গবেষণা। বেরিয়ে আসে চমকপ্রদ সব তথ্য।

বিজ্ঞানীরা জানান, মানুষের এই হাড় অন্তত ১ লাখ ৩০ হাজার বছর আগের। তবে বর্তমান মানুষের সাথে উদ্ধার হওয়া হাড়ের কাঠামোর কোন মিল পাননি গবেষকরা। তারা বলছেন, প্রাগৈতিহাসিক এই প্রজাতির মানুষ সম্পর্কে একেবারেই অজ্ঞাত বিজ্ঞানীরা।

তেল আবিব বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞানী হিলা মে বলেন, এই হাড়ের টুকরো গবেষণা করেই মানব ইতিহাসের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য বের করছি আমরা। এই মানুষের মধ্যে নিয়ানডারথাল ও আর্কাইক হোমো প্রজাতির বৈশিষ্ট্য বিদ্যমান রয়েছে। ধারণা করছি তারা ইউরোপের আগে এখানে প্রথম বাস করতো।

এ গবেষণাসংক্রান্ত একটি নিবন্ধন প্রকাশিত হয়েছে সায়েন্স সাময়িকীতে। তেল আবিব ও হিব্রু বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা বলেন, তারা যেখান থেকে ওই হাড়ের সন্ধান পেয়েছেন, তার সাথে মিলিয়ে এই প্রজাতিটির নাম রাখা হয়েছে ‘নেসের রামলা হোমো’।

নৃবিজ্ঞানী হিলা মে জানান, ইউরোপেও এ সংক্রান্ত বেশ কিছু গবেষণা চলছে। তবে এই ফসিল থেকে যে তথ্য পাচ্ছি সে সম্পর্কে আগে কিছু শুনিনি। তাই গবেষণার নতুন এক অধ্যায় চালু হলো আমাদের।

খনন চালানোর সময় আদিম মানুষের হাড় ছাড়াও ঘোড়া, হরিণসহ বিভিন্ন প্রাণীর হাড়গোড় ও পাথরের অস্ত্রের সন্ধান পেয়েছেন প্রত্নতাত্ত্বিকরা।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply