শেষ পর্যন্ত মোদির দেখা পেলেন ট্রুডো

|

কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো প্রায় এক সপ্তাহ ধরে ভারত সফর করছেন। কানাডার প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরের প্রথম থেকেই শিখ সম্প্রদায়ের খালিস্তান আন্দোলন নিয়ে বিতর্ক চলছে। শিখ কট্টরপন্থীদের ব্যাপারে ট্রুডোর সরকার সহানুভুতিশীল বলে অভিযোগ রয়েছে। ভারত সরকারের গুরুত্বপূর্ণ অনেক সদস্যই ট্রুডোর সফরের ব্যাপারে ছিলেন উদাসীন। ভারতে যথাযথ রাষ্ট্রীয় অভ্যর্থনা পাননি ট্রুডো- গত কয়েকদিনে এমন শিরোনাম অনেকবারই হয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে।

অবশেষে ট্রুডোর ভারত সফরে উভয় দেশের মধ্যকার বরফ গলার আভাস পাওয়া গেলো। কারণ সফরের সপ্তম দিনে শুক্রবার

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি’র দেখা পেলেন জাস্টিন ট্রুডো। নরেন্দ্র মোদি এর পূর্বে অনেক বিশ্ব নেতাকে নিজে বিমানবন্দর থেকে বরণ করেছেন। কিন্তু ট্রুডো সফরে আসার পর ৬ দিন পেরিয়ে গেলেও দেখা করেন নি তার সাথে। বৃহস্পতিবার এক টুইট বার্তায় মোদি ট্রুডোকে স্বাগত জানান। তবে এই সৌজন্য শর্তহীন ছিল না। এর আগে খালিস্তান আন্দোলনের প্রতি সহানুভূতিশীল একজন ভারতীয় নেতার সঙ্গে পূর্বনির্ধারিত নৈশভোজ বাতিল করেন টুডো।

এই দুই নেতার সাক্ষাৎ হয় দিল্লির রাষ্ট্রপতি ভবনে। সেখানে তারা বাণিজ্য, প্রতিরক্ষা, জলবায়ু পরিবর্তন এবং পারমাণবিক শক্তির কল্যাণকর ব্যবহারের বিষয়ে আলোচনা করেন বলে জানা গিয়েছে।









Leave a reply