জানা যায়নি ম্যাকরনকে চড় দেওয়ার কারণ!

|

জনসংযোগের সময় ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাকরনের চড় খাওয়ার ঘটনায় তোলপাড় চলছে দেশটিতে। এরইমধ্যে ফরাসি সরকার ওই ব্যাক্তির পরিচয় প্রকাশ করেছেন। ২৮ বছর বয়সী ব্যক্তির নাম ডেমিয়েন তারেল। তবে তিনি কেন ম্যাকরনকে চড় দেন এ বিষয়ে কিছু জানায়নি পুলিশ।

আটককৃত ব্যাক্তির এর আগের কোনো অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের রেকর্ড নেই বলে জানিয়েছে পুলিশ। তবে ওই ব্যক্তি কট্টর ডানপন্থিদের বিভিন্ন ইউটিউব চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার।

স্থানীয় গণমাধ্যমে জানানো হয়, বুধবার আনুষ্ঠানিক তদন্ত শুরু হয় তার বিরুদ্ধে। জনগুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির ওপর হামলার অভিযোগ গঠন হবে তার বিরুদ্ধে। অভিযোগ প্রমাণিত হলে সর্বোচ্চ তিন বছরের জেল ও ৫৫ হাজার ডলার জরিমাণা গুনতে হতে পারে তার।

মঙ্গলবার ফ্রান্সের ড্রোম প্রদেশের ছোট শহরটির রেঁস্তোরা ব্যবসায়ী ও স্কুল পরিদর্শনের পর অপেক্ষমান সাধারণ মানুষের সাথে কুশল বিনিময়ে এগিয়ে যান প্রেসিডেন্ট ম্যাকরন। হঠাৎ’ই ঘটে অপ্রীতিকর ঘটনা।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন

দেহরক্ষীরা দ্রুত সামলে নিলেও এ ঘটনার ভিডিও ঘুরে বেড়াচ্ছে অনলাইন দুনিয়ায়। চড় খাওয়ার একদিন পর মুখ খুলেছেন প্রেসিডেন্ট ম্যাকরন। বলেন, ঘৃণা আর সহিংসতার স্থান নেই গণতন্ত্রে। ভবিষ্যতেও গণসংযোগ চালিয়ে যাওয়ার প্রত্যয় জানান তিনি।

তিনি আরও বলেন, গণতন্ত্রে ক্ষোভ প্রকাশের সুযোগ আছে। আমি বরাবরই সাধারণ মানুষের কাছাকাছি আসাটা গুরুত্বপূর্ণ মনে করি। অনেক সময়ই তারা ক্ষোভ-হতাশা প্রকাশ করে। কোনো কোনো কাজে আমি সফল হই, কখনও ভুল করি। সেটা নিয়ে প্রশ্ন তুললে জবাবও দেই। তবে নির্বুদ্ধিতার সাথে সহিংসতা যুক্ত হলে তা গ্রহণযোগ্য নয়।

এনএনআর/









Leave a reply