ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে নিপীড়ন: তদন্তে অগ্রগতি নেই

|

মাস পেরিয়ে গেছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রী নিপীড়ন ও আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার ঘটনার তদন্ত শেষ হয়নি। ছাত্রী নিপীড়ন, প্রক্টর অফিসের ফটক ভাঙচুর ও উপাচার্যকে অবরুদ্ধের ঘটনায় আলাদা তিনটি তদন্ত কমিটি হলেও একটির প্রতিবেদন আসেনি। তদন্ত শেষে দোষীদের খুঁজে বের না করায় ক্ষোভ জানিয়েছেন ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীরা। কবে শেষ হবে তদন্ত তা বলতে পারছেন না কেউ।

সাত কলেজের অধিভুক্তি বাতিলের দাবিতে আন্দোলনে নেমেছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। ১৫ জানুয়ারি তাদের কর্মসূচির সময় ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা অশোভন আচরণ করে সরিয়ে দেন। এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ করেন শিক্ষার্থীরা।

প্রশাসনের কাছ থেকে কোনো সাড়া না পেয়ে দু’দিন পর নিপীড়নকারীদের শাস্তির দাবিতে প্রক্টর অফিস ঘেরাও করেন শিক্ষার্থীরা। এসময় তাদের প্রতি সমর্থন জানিয়ে আন্দোলনে যুক্ত হয় প্রগতিশীল ছাত্রজোট। ভেঙে ফেলা হয় গেট। এ ঘটনায় অজ্ঞাতনামা শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

সবচেয়ে বড় ঘটনা ঘটে ২৩ জানুয়ারি, নিপীড়নকারীদের বহিস্কার, মামলা প্রত্যাহার ও প্রক্টরের পদত্যাগের দাবিতে উপাচার্যকে ঘেরাও করেন শিক্ষার্থীরা। একপর্যায়ে, তাতে হামলার চালায় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। তিনটি ঘটনায় পৃথক তদন্ত কমিটিও গঠন হয়। মাস পেরুলেও দেয়া হয়নি তদন্ত রিপোর্ট।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা বলছেন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বিচার করা দূরে থাক, উল্টো নিপীড়কদের মদদ দিচ্ছে। এ ঘটনায় সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার হবে এ বিষয়ে অনাস্থার কথা জানিয়েছেন তারা।

নিপীড়নের অভিযোগ করা নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ৪র্থ বর্ষের এক নারী শিক্ষার্থীর অভিযোগ সাক্ষ্য দিতে ডেকে নিয়ে উল্টো নিপীড়নকারীদের পক্ষেই কথা বলেছে তদন্ত কমিটি। তার কথা তদন্ত কমিটির সামনে গিয়ে মনে হলো তারা অভিযুক্তদের উকিল, আমাদের জেরা করছে। তাদের নিরপেক্ষ দৃষ্টিভঙ্গি থাকা উচিত ছিল। শিক্ষার্থীরা কেন হয়রানি হতে তাদের কাছে যাবে?

তবে তদন্ত কমিটির আহবায়ক জিনাত হুদার দাবি, সাক্ষ্য দেয়ার জন্য কাউকেই পাওয়া যায়নি। তিনি বলেন, অনেকে এই ঘটনায় বিভিন্ন জায়গায় অনেক কিছু লিখছেন, অভিযোগ করছেন, অথচ তারা কেউ সাক্ষ্য দিতে আসেনি।

তদন্তকাজ শেষ করতে কোনো সময় বেধে দেয়নি ঢাবি কর্তৃপক্ষ। আর তাই, তিনটি ঘটনার তদন্ত রিপোর্ট কবে আসতে পারে, সেটিও নিশ্চিত করে বলতে পারছে না কেউ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড.আখতারুজ্জামান বলেন, তদন্ত কমিটি প্রতিবেদন জমা দেয়ার পরপরই তা প্রকাশ হবে এমন না, আগে সংশ্লিষ্টি কিছু ফোরামে সেগুলো নিয়ে আলোচনা হবে। তারপরই তা প্রকাশ হবে।

যমুনা অনলাইন: এমআই/টিএফ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply