পাকিস্তানে ধর্ষণ মামলায় আসামিকে চার বার মৃত্যুদণ্ড

|

ছয় বছরের শিশু জয়নব আনসারিকে ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় অভিযুক্ত ইমরান আলিকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে পাকিস্তানের দুর্নীতি দমন আদালত। শনিবার ২৪ বছর বয়সী ইমরানকে চার দফায় মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়। অপহরণ, ধর্ষণ, হত্যা ও সন্ত্রাসবাদিতার পৃথক অভিযোগের সবগুলোতেই দোষী সাব্যস্ত করে একাধিকবার মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়েছে। এছাড়াও সমকামিতার অভিযোগে যাবজ্জীবন ও অন্য একটি অভিযোগে ৭ বছরের কারাদণ্ডসহ ২০ লাখ রুপি জরিমানা করা হয়েছে।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী জেনারেল এহতেশাম কাদির বলেছেন আপিল করার জন্য ইমরান ১৫ দিন সময় পাবেন। যদিও শুরুতে অভিযোগ অস্বীকার করলেও পরে অপরাধ স্বীকার করেছেন ইমরান।

মক্তবে কোরআন পড়া শেষে বাড়ি ফেরার পথে অপহৃত হন শিশু জয়নব। ওমরাহ পালন উপলক্ষ্যে তার বাবা-মা সেসময় সৌদি আরবে ছিলেন। ময়না তদন্তের প্রতিবেদনে উঠে আসে, জয়নবকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়। জয়নবের লাশ পাওয়া যায় বাড়ি থেকে দুই কিলোমিটার দূরে একটি ভাগাড়ে। সেসময় গণমাধ্যমে এই ধর্ষণ ও হত্যা ব্যাপক সাড়া ফেলেছিল। দোষীদের গ্রেফতারের দাবিতে বিক্ষোভ করেছিলেন পাকিস্তানের সাধারণ মানুষ।

ঘটনার পর ৪ জানুয়ারি থেকেই নিখোঁজ ছিল ইমরান। ২৩ জানুয়ারি ইমরানকে গ্রেফতার করে লাহোর পুলিশ। ১৪ জানুয়ারি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয় সে। এরপরই আসামি পক্ষের আইনজীবী মামলা থেকে সরে দাঁড়ান।

যমুনা অনলাইন: এনপি/টিএফ









Leave a reply