প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কপ-২৬ সভাপতির সাক্ষাৎ

|

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন জাতিসংঘ আয়োজিত বিশ্ব জলবায়ু সম্মেলনের (কপ–২৬) সভাপতি ও ব্রিটিশ এমপি অলোক শর্মা। বুধবার (০২ জুন) সকালে গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন তিনি। পরে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম এ বিষয়ে ব্রিফ করেন।

ইহসানুল করিম জানান, বৈঠকে জলবায়ুর পরিবর্তন পরিস্থিতি, এর বৈশ্বিক বিরূপ প্রভাব, অভিযোজন, প্রশমন এবং জলবায়ু তহবিল এবং করোনা মহামারিসহ বিভিন্ন ইস্যুতে আলোচনা হয়।

সাক্ষাৎকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশ আশা করে যুক্তরাজ্য জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকিতে থাকা দেশগুলোর স্বার্থ ও অগ্রাধিকারের বিষয়গুলো আন্তর্জাতিক ফোরামগুলোতে গুরুত্বের সঙ্গে তুলে ধরবে।

বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তনে বাংলাদেশসহ জলবায়ুর বিরূপ প্রভাবের ফলে ঝুঁকিতে থাকা অন্যান্য দেশগুলো মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে। যদিও বাংলাদেশে কার্বন নিঃসরণের হার খুবই কম। তবুও আমরা মারাত্মকভাবে আক্রান্ত হচ্ছি।

ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরামের (সিভিএফ) সভাপতি হিসেবে বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব মোকাবিলায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবেন বলে আশা প্রকাশ করেন অলোক শর্মা। আগামী নভেম্বরে যুক্তরাজ্যে অনুষ্ঠেয় পরবর্তী কপ-২৬ সম্মেলনে যোগ দেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আমন্ত্রণ জানান তিনি।

এছাড়া পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাতে বিদ্যুৎ উৎপাদনে কয়লার ব্যবহার কমাতে বাংলাদেশকে তাগিদ দিয়েছেন ঢাকা সফররত কপ-২৬ এর নতুন প্রেসিডেন্ট অলোক শার্মা। তিনি বলেন, পরিবেশ ও জনমানুষর জীবন জীবিকা রক্ষায় তা জরুরি।

জবাবে পররাষ্ট্র মন্ত্রী জানিয়েছেন, ২০৪১ সালের মধ্যে মোট বিদ্যুতের ৪০ শতাংশ আসবে নবায়নযোগ্য জ্বালানি থেকে। ধীরে ধীরে কয়লা থেকে সরকার সরে আসবে বলেও আশ্বস্ত করেন তিনি।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply