‘‌মুক্তিযোদ্ধা বানাতেও পারি, বাতিলও করতে পারি’

|

অভিযুক্ত শুভাশিষ মুখার্জি।

পটুয়াখালী প্রতিনিধি:

পটুয়াখালীতে মুক্তিযোদ্ধা সংখ্যালঘু পরিবারের সদস্যদের ওপর হামলা চালানোর অভিযোগ এসেছে এলাকার প্রভাবশালী জনৈক শুভাশিষ মুখার্জির বিরুদ্ধে। শুভাশিষ ওই মুক্তিযোদ্ধা পরিবারটির জমি অবৈধভাবে দখল করার উদ্দেশ্যে পিস্তল দেখিয়ে বলেন, আমি মুক্তিযোদ্ধা বানাতেও পারি আবার বাতিলও করতে পারি।

আজ মঙ্গলবার (১ জুন) দুপুরে পটুয়াখালী প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে বীর মুক্তিযোদ্ধা খোকন চন্দ্র চ্যাটার্জির স্ত্রী রিতা চ্যাটার্জি এসব কথা বলেন।

রিতা জানান, গত ২৫ মে সকালে ভুক্তভোগীর বাড়িতে দলবলসহ এসে হামলা চালিয়ে নির্মাণাধীন বাড়ির কাজ বন্ধ করে দেয় অভিযুক্ত শুভাশিষ। এই জমির একটি অংশের মালিকানা দাবি করে শুভাশিষ পরিবারটির সদস্য প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধা খোকন চন্দ্র চ্যাটার্জি সম্পর্কে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করেন এবং ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যদের হত্যার হুমকি দেন।

রিতা চ্যাটার্জি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, তার স্বামী বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রয়াত খোকন চন্দ্র চ্যাটার্জি মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকিস্তানের পতাকা পোড়ানোর দায়ে হানাদার বাহিনীর হাতে নির্যাতনের শিকার হয়েছিলেন। সেদিন তিনি বেঁচে গেলেও আজ তার পরিবার সংকটাপন্ন জীবন যাপন করছে।

অভিযুক্ত নাটক সাজিয়ে তার সন্তানদের বিরুদ্ধে মামলা করে সম্মানহানির হুমকি দেয় বলেও জানান রিতা।

এ ব্যাপারে পটুয়াখালী সদর থানায় ভুক্তভোগী পরিবারটি একটি মামলা দায়ের করেছে।

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে শহরের সেন্টারপাড়াস্থ ‘চয়নিকা স্টোর্স’ এর স্বত্ত্বাধিকারী শুভাশিষ মুখার্জি বলেন, আমার সম্মানহানি করার জন্যই এসব অভিযোগ করা হচ্ছে। পিস্তল প্রদর্শন করার কথা অস্বীকার করে তিনি বলেন, আমার কোনো পিস্তল নেই এবং আমি সেখানে উপস্থিতও ছিলাম না। পুলিশকে বলার পর তারা গিয়ে বাড়ি তৈরির কাজ থামিয়ে দিয়েছে।

সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আখতার মোরশেদ জানান, শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য আপাতত উভয়পক্ষকে শান্ত থাকতে বলা হয়েছে।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply