কোচ বদলের পুরনো ফর্মুলায়ই সফল আব্রামোভিচ

|

কোচ বদলে চেলসির সাফল্য পাওয়ার এই অভিজ্ঞতা মোটেও নতুন নয়। বরং চেলসির মালিক রোমান আব্রামোভিচের এই কৌশল পুরনো। অতীত রেকর্ড বলে কোচ বদলেই ১৮ বছরে ৫টি লিগ, ২টি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ সহ মোট ৯টি শিরোপা জিতেছে আব্রামোভিচের চেলসি।

গত ২৬ জানুয়ারি চেলসির কোচের দায়িত্ব নেন টমাস টুখেল। ধুঁকতে থাকা চেলসিকে ৫ মাসের মধ্যেই জিতিয়েছেন চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা। দায়িত্ব গ্রহণের সময় প্রিমিয়ার লিগে পয়েন্ট টেবিলের ৯ এ ছিলো চেলসি। আর টুখেলের ছোঁয়ায় লিগ শেষ করেছে টপ ফোরে থেকে।

২০০৩ সালে চেলসির মালিকানায় আসেন রাশান ধনকুবের রোমান আব্রামোভিচ। সে সময় চেলসির কোচ ছিলেন ক্লদিও রানিয়েরি। ওই মৌসুমে চেলসি লিগে হয় দ্বিতীয়। তাইতো রানিয়েরিকে ছাঁটাই করে হোসে মরিনিয়োকে কোচ হিসেবে নিয়োগ দেয় চেলসি। মরিনিয়োর ট্যাকটিক্সে পরের দুই মৌসুম লিগ চ্যাম্পিয়ন হয় ব্লুরা।

২০০৭ সালে মরিনিয়োর বিদায়ের পরের দুই বছরে আব্রাহাম গ্রান্ড, স্কলারি, গাস হিডিঙ্কের পর চতুর্থ কোচ হিসেবে চেলসির ডাগ আউটে বসেন কার্লো অ্যানচেলোত্তি। পরের ২০০৯-১০ মৌসুমে চেলসিকে লিগ শিরোপা এনে দেন এই ইতালিয়ান।

কিন্তু এক মৌসুম পর সাফল্য খরায় অ্যানচেলোত্তিকে ছাঁটাই করে আন্দ্রে ভিয়াস বোয়াসকে রেকর্ড ট্রান্সফার ফি দিয়ে কোচ করেন আব্রামোভিচ। কিন্তু সাফল্য না পাওয়ায় বছর না ঘুরতেই তাকেও ছাঁটাই করে ডি মাতেওকে কোচের দায়িত্ব দেয়া হয়। এই ইতালিয়ানের হাত ধরেই ২০১২ সালে প্রথম চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা জেতে চেলসি। কিন্তু ৮ মাস পরই চাকরি হারান মাতেও। এরপর খণ্ডকালিন কোচ হিসেবে রাফায়েল বেনিটেজ দায়িত্ব পালনের পর ২০১৩ সালের জুনে প্রত্যাবর্তন করেন মরিনিয়ো। স্পেশাল ওয়ানের হাত ধরে ২০১৫ সালে আবারো লিগ শিরোপা জেতে চেলসি।

প্রায় আড়াই বছর কোচ থাকার পর দ্বিতীয় মেয়াদেও চেলসি থেকে বরখাস্ত হন মরিনিয়ো। এরপর আবারো অস্থায়ী কোচ হিসেবে ২০১৫-১৬ মৌসুমটা শেষ করেন হিডিঙ্ক। ২০১৬ সালে চেলসির কোচ হন আন্তোনিও কন্তে। এই ইতালিয়ান দায়িত্ব নিয়েই ব্লুদের এনে দেন ইপিএলের ষষ্ঠ শিরোপা। কিন্তু ২০১৮ সালে কন্তেকে ছাঁটাই করে আরেক ইতালিয়ান মরিসিও সারিকে কোচ করেন আব্রামোভিচ। এক বছরের স্পেলে চেলসিকে ইউরোপা লিগ জেতালেও চাকরি ধরে রাখতে পারেননি সারিও। এরপর ২০১৯ সালের জুলাই এ ক্লাব লেজেন্ড ফ্রাঙ্ক ল্যাম্পার্ডকে কোচ করে চেলসি। তবে সাফল্য খরায় ভক্তদের অনিচ্ছা স্বত্বেও ল্যাম্পার্ডকে এই বছরের জানুয়ারিতে বরখাস্ত করেন আব্রামোভিচ। আবারো কোচ বদলে এবার টুখেলের হাত ধরে দ্বিতীয় চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতলো চেলসি। আবারো সফল আব্রামোভিচের কোচ ছাঁটাই ফর্মুলা!





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply