সেতুটি পার হতে লাগে সাঁকো!

|

স্টাফ রিপোর্টার, নেত্রকোণা:

নেত্রকোণার কলমাকান্দায় মহিম খালের ওপর সেতু নির্মাণ করা হলেও নেই একপাশের সংযোগ সড়ক। তাই অচল সেতুটি পার হতে প্রয়োজন হয় বাঁশের সাঁকো।

স্থানীয় ১০টি গ্রামের অন্তত ৫০ হাজার মানুষ নিয়মিত পার হলেও সেতুটি সংস্কার করার ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কারো কোনো পদক্ষেপ নেই। ফলে পথচারীরা প্রতিদিনই ঝুঁকি নিয়ে পার হয় এই সাঁকো।

উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের দশটি গ্রামের দুর্ভোগ লাঘবে ২০০৪ সালে মহিম খালের ওপর সেতুটি নির্মাণ করে দিয়েছিল ওয়ার্ল্ড ভিশন। তবে একপাশে সংযোগ সড়ক না থাকায় স্থানীয়দের কোনো কাজেই আসছে না সেতুটি।

স্থানীয়রা বলছেন, সেতুটি ভাঙা হওয়ায় গ্রাম থেকে শহরে ধান, চাল ও কৃষিপণ্য যানবাহনে পরিবহন করা যাচ্ছে না। জরুরি সময়ে এই সাঁকো পার হয়ে হাসপাতালে যাওয়াও কঠিন হয়ে পড়ে।

নলছাপ্রা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কুপোতী ঘাগ্রা বলেন, এই সাঁকো পার হয়ে দুই শতাধিক শিক্ষার্থী স্কুলে যায়। সেতুটির এমন অবস্থা হওয়ায় শিক্ষার্থীদের ঝুঁকি নিয়েই যাওয়া আসা করতে হয়।

নাজিরপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল কুদ্দুছ আশ্বস্ত করেছেন, তিনি বিষয়টি উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তাকে জানাবেন।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয়ের উপসহকারী প্রকৌশলী মাহমুদুল হাসান জানাচ্ছেন, ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে সংযোগ সড়কটি করে দেয়া হবে। সড়কটি হয়ে গেলে মানুষের আর দুর্ভোগ পোহাতে হবে না বলেও তিনি আশা প্রকাশ করেন।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply