নিউজিল্যান্ডে প্রবল বন্যা, ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা

|

নিউজিল্যান্ডে ভারী বর্ষণের ফলে ক্যান্টারব্যুরি প্রদেশে প্রবল বন্যার সৃষ্টি হয়েছে। টানা তিন দিন ধরে চলা বৃষ্টিপাতে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে।

অঞ্চলটিতে ৪০০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করেছে কর্তৃপক্ষ। পানি ঢুকে গেছে জনবসতিতে। ভেসে গেছে খামার, ফসলের জমি এবং হাইওয়ে। বন্যার পানির তীব্রতায় সোমবার এলাকা ছাড়া হয়েছে কয়েকশ মানুষ।

স্থানীয় গণমাধ্যম বলছে, নদীর পানির উচ্চতা আশঙ্কাজনক হারে বেড়ে গেছে। খালি করা হয়েছে অন্তত ৩০০ বাড়ি। ক্যান্টারব্যুরিতে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। স্কুল, অফিস সহ সকল প্রতিষ্ঠান বন্ধের ঘোষণা দেয়া হয়েছে। বন্যা কবলিত এলাকায় হেলিকপ্টারে উদ্ধার কাজ চালাচ্ছে নিরাপত্তা বাহিনী। দেশটির আবহাওয়া অধিদফতর গত শনিবারেই (২৯ মে) বড় ধরনের বন্যার পূর্বাভাস দিয়েছিল।

ক্যান্টারব্যুরি সিভিল ডিফেন্স জরুরি ব্যবস্থাপনা গ্রুপের নিয়ন্ত্রক নেভিল রেইলি নিউজিল্যান্ড হেরাল্ডকে জানিয়েছেন, প্রদেশে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে কারণ কর্তৃপক্ষ কোনো ঝুঁকি নিতে চাচ্ছে না।  তিনি আরও বলেন, যদি খারাপ কিছু ঘটে সেক্ষেত্রে আমরা যেন লোকজনদের বের করে এনে অন্য কোথাও যাওয়ার সুযোগ দিতে পারি সেজন্য অনেকগুলো জরুরি পরিকল্পনা আমাদের রয়েছে।

ক্যান্টারব্যুরির বেশ কয়েকটি মহাসড়ক, স্কুল এবং অফিস বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। জানা গেছে, নিউজিল্যান্ডের প্রতিরক্ষা বাহিনী অ্যাশবার্টন অঞ্চলে বন্যায় আটকা পড়া কয়েকজনকে উদ্ধারের জন্য হেলিকপ্টার পাঠিয়েছে।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply