হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মেঘনায় চলছে বালু উত্তোলন

|

ভৈরব প্রতিনিধি:

হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মেঘনা নদীতে ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন চলছে। সম্প্রতি হাইকোর্টের বিচারপতি এম এনায়েতুর রহমান ও বিচারপতি মো. রাশেদ জাহাংগীরের বেঞ্চ গত ১১ এপ্রিল দুই মাসের জন্য মাঝেরচর এলাকার মেঘনা নদীতে বালু উত্তোলনে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেন। কিন্তু হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা থাকার পরও সাখাওয়াত হোসেনের বালু সিন্ডিকেট বর্তমানে নদী থেকে অবাধে বালু উত্তোলন করে যাচ্ছে।

জানা গেছে ভৈরব এলাকার বাসিন্দা মেসার্স নাগিব এন্টারপ্রাইজের মালিক তানভীর আহমেদ গত ৫ এপ্রিল মাঝেরচর এলাকার মেঘনা নদী বালুমহালের কাজটি লিজে পায়। উল্লেখ্য টেন্ডারে নাগিব এন্টারপ্রাজের প্রতিপক্ষ ছিল নবীনগরের সাখাওয়াত হোসেন। তার দরপত্র কম থাকায় সে কাজটি পায়নি।

পরে সাখাওয়াত ঢাকার বিভাগীয় কমিশনারের অফিসে আপিল করলে তার বিপরীতে তানভীর হাইকোর্টে রিট পিটিশন দায়ের করে। এরপর হাইকোর্টের দুই পক্ষের শুনানী শেষে গত ১১ এপ্রিল মাঝেরচর এলাকায় দুই মাসের জন্য বালু উত্তোলনে স্থিতিবস্থার আদেশ দেন।

আজ শনিবার সরেজমিনে মেঘনা নদীতে গিয়ে দেখা যায়, হাইকোর্টের স্থিতিবস্থার আদেশ থাকলেও কয়েকটি ড্রেজার অবাধে বালু উত্তোলন করছে।

এ বিষয়ে রায়পুরা উপজেলার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আজগর হোসেন কিছুই জানেন না বলে এই প্রতিনিধিকে জানান।

নরসিংদির অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) ফারুক আহমেদকে বিষয়টি জানানো হলে তিনি এ বিষয়ে অবগত নন বলে জানান। তবে হাইকোর্টের স্থিতিবস্থার আদেশটি তার জানা আছে জানিয়ে তিনি বলেন, অবৈধভাবে কেউ বালু উত্তোলন করলে প্রয়োজনে ভ্রাম্যমান আদালত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply