সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে তুরস্কে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

|

ন্যাটো মিত্র যুক্তরাষ্ট্র ও তুরস্কের সম্পর্ক সাম্প্রতিক ইতিহাসে সবচেয়ে তলানিতে এসে ঠেকেছে। সিরিয়ায় কুর্দি গেরিলাদেরকে মার্কিন সমর্থন ও অস্ত্র দেয়াকে কেন্দ্র করে ওয়াশিংটন ও আঙ্কারা মুখোমুখি অবস্থানে আছে।

এমনকি দুই সপ্তাহ আগে সিরিয়ার মানবিজে প্রয়োজনে মার্কিন সেনাদের সাথে সরাসরি সংঘাতে জড়ানোরও হুমকি দেয় তুরস্ক। এমন সময়ে আজ আঙ্কারা সফরে যাচ্ছেন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন।

গত এক সপ্তাহ ধরে মধ্যপ্রাচ্য সফরে আছে টিলারসন। মিশর, লেবানন, কুয়েত এবং সর্বশেষ জর্দান ঘুরে আঙ্কারায় পৌঁছাবেন বৃহস্পতিবার। বিশ্লেষকরা বলছেন, মূলত সিরিয়া ইস্যুতে তুরস্কের সাথে সৃষ্ট দূরত্ব ঘুচিয়ে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার চেষ্টায় আছেন শীর্ষ এই মার্কিন কূটনীতিক।

আটলান্টিক কাউন্সিলের মধ্যপ্রাচ্য বিষয়ক ফেলো আরোন স্টেইন ওয়াশিংটন টাইমস’কে বলেছেন, ‘দু’পক্ষই কৌশলগত দিক থেকে পরস্পর বিরোধিতায় জড়িয়ে পড়েছে। আফরিন অভিযান তুরস্ককে সিরিয়ায় মূল লক্ষ্য (মিত্রদের) থেকে বিচ্যুত করছে বলে মনে করে ওয়াশিংটন। আর কুর্দিদের প্রতি সমর্থনও উঠিয়ে নিতে চাচ্ছে না।’ আবার আঙ্কারার সাথে সম্পর্কের অবনতি চায় না মার্কিন প্রশাসন।

মার্কিন প্রশাসনের এক কর্মকর্তা সিএনএন’কে বলেছেন, ‘তুর্কিরা এখন ক্ষুব্ধ। এমন পরিস্থিতিতে কোনো কাজ করা কঠিন। কিন্তু আমাদের দৃঢ় বিশ্বাস, এতকিছুর পরও আমাদের উভয় পক্ষের একসাথে কাজ করার মতো ঐক্যের অনেক বিষয়ই রয়েছে। যেমন সিরিয়ায় আইএস ও পিকেকে’র বিরুদ্ধে, আঞ্চলিক ক্ষমতার ভারসাম্য ইত্যাদি।’

ওই কর্মকর্তাকে উদ্ধৃত করে সিএনএন লিখেছে, ‘বর্তমান পরিস্থিতি উভয় পক্ষের এক সাথে কাজ করা খুবই জরুরি। কিন্তু (এরদোগানের সাথে) বিষয়গুলো নিয়ে কথা বলা বেশ জঠিলই হবে।’





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply