মাসুদ খানের নতুন ২ বই

|

মাসুদ খান আশির দশকের অন্যতম শক্তিশালী কবি। জন্ম ২৯ মে ১৯৫৯, পিতার কর্মস্থল জয়পুরহাট জেলার ক্ষেতলালে। পৈতৃক নিবাস সিরাজগঞ্জ। প্রকৌশলবিদ্যায় স্নাতক, ব্যবসায় প্রশাসনে স্নাতকোত্তর। তড়িৎ ও ইলেকট্রন প্রকৌশলী। প্রকাশিত বই : কবিতা— পাখিতীর্থদিনে (নদী, ১৯৯৩) নদীকূলে করি বাস (একুশে, ২০০১) সরাইখানা ও হারানো মানুষ (একুশে, ২০০৬) আঁধারতমা আলোকরূপে তোমায় আমি জানি (ভাষাচিত্র, ২০১১) এই ধীর কমলাপ্রবণ সন্ধ্যায় (আড়িয়াল, ২০১৪) গদ্য— দেহ-অতিরিক্ত জ্বর (চৈতন্য, ২০১৫) প্রজাপতি ও জংলি ফুলের উপাখ্যান (চৈতন্য, ২০১৬)। এবারের বইমেলায় প্রকাশিত হচ্ছে তার দুটি বই। এব্যাপারে খুব ছোট্ট করে তার সাথে কথা হয় ফেসবুকে। যমুনার পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো সেই কথপোকথন।

 

যমুনা ওয়েব: এবারের মেলায় আপনার কটি বই প্রকাশিত হচ্ছে?

মাসুদ খান: এবার মেলায় ২টি বই আসছে।

যমুনা ওয়েব: এই বইগুলোর প্রকাশক ও বিনিময় মুল্য কত?

মাসুদ খান:  পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্স লি. থেকে আসছে কবিতার বই প্রসন্ন দ্বীপদেশ । ৬৪ পৃষ্ঠার এই বইয়ের মূল্য রাখা হয়েছে ১২০ টাকা। গদ্যগুচ্ছ গদ্যের বই। চৈতন্য প্রকাশন থেকে আসছে  গদ্যের বই— গদ্যগুচ্ছ। ১০০ পৃষ্ঠার এই বইয়ের মূল্য ২২০ টাকা।

যমুনা ওয়েব: বইটির লেখাগুলো কবে লেখা ?

মাসুদ খান: প্রসন্ন দ্বীপদেশ— রচনাকাল ২০১৪ থেকে ২০১৭। গদ্যগুচ্ছ— রচনাকাল ১৯৮৭ থেকে ২০১৭।

যমুনা ওয়েব: কবিতা/গল্প/প্রবন্ধ/অনুবাদ এর মূল বিষয়বস্তু কি?

মাসুদ খান: সুনির্দিষ্ট বিষয়বস্তুহীন। গদ্যের বইয়ের বিষয় হলো- কবিতা, ভাষা ও সমাজ-সংস্কৃতি বিষয়ক, এবং ব্যক্তিগত কৈফিয়তমূলক গদ্য।

যমুনা ওয়েব: বইটি প্রকাশ করার পেছনে কোনো মধুর বা তিক্ত আভিজ্ঞতা থাকলে জানাবেন।

মাসুদ খান:  নাই।

যমুনা ওয়েব: ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কি আপনার?

মাসুদ খান: প্রকাশিত ৬টি কবিতার বইয়ের কবিতা নিয়ে “কবিতাসংগ্রহ” বের করার পরিকল্পনা আছে এ বছর। এ ছাড়া, একটি অনুবাদের বই, এবং বাংলাভাষার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ কবিদের সাহিত্যকৃতি নিয়ে আলোচনা-গ্রন্থ প্রকাশেরও পরিকল্পনা আছে।









Leave a reply