ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের অভিযোগ, প্রিয়ার বিরুদ্ধে মামলা!

|

যে গান প্রিয়া প্রকাশ ওয়ারিয়াকে রাতারাতি তারকা করে তুলেছিলো, সেই গানই তাকে ফেলে দিলো বিপাকে। গত ৯ ফেব্রুয়ারি ইউটিউবে মুক্তি পেয়েছে প্রিয়া প্রকাশ ওয়ারিয়া অভিনীত মালায়ালাম ছবি ‘অরু আদার লাভ’র ‘মানিকেয়া মালারায়া প্রভি’ শিরোনামের একটি গান।

গানের এক দৃশ্যে নিজের চোখের জাদুতে সকলের নজর কেড়েছেন প্রিয়া। এবার সেই প্রিয়া ও তার সহশিল্পী এবং নির্মাতার বিরুদ্ধে হায়দ্রাবাদের ফলকনামা পুলিশ স্টেশনে মামলা দায়ের করলেন এক মুসলিম যুবক ও তার বন্ধুরা।

এ প্রসঙ্গে অভিযোগকারী মুকিত খান সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, “আমি ইউটিউবে ‘মানিকেয়া মালারায়া প্রভি’র ভিডিওটি দেখেছি। ভালোও লেগেছে। ডাউনলোড করে রেখেছি। বারবার দেখার পর গানের কথাগুলো বোঝার চেষ্টা করি। কিন্তু যেহেতু মালায়ালাম ভাষায় তাই বুঝতে পারিনি। তখন গুগল করি। শেষমেশ অনুবাদ করে তবে গানের কথা স্পষ্ট হয়। তখনই বুঝতে পারি এই গানে ‘প্রফেট’ (মুহাম্মদ সা.) কথাটি ব্যবহার করে তাকে অবমাননা করা হয়েছে। এছাড়া যখন নবী (স) কে নিয়ে গানে কথা হচ্ছে ঠিক তখনই দুই তরুণ-তরুণীর রোমান্সের দৃশ্য পরিবেশন করায় মুসলিমদের ভাবাবেগে আঘাত করছে।”

গানটি ইউটিউবে রিলিজ হওয়ার আগে প্রিয়ার ইনস্টাগ্রামে ফলোয়ার ছিলো মাত্র ১৫০০। ভিডিও ক্লিপটি ভাইরাল হওয়ার পর, তার ফলোয়ার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১১ লাখে। নবাগত একজন অভিনেত্রীর এতো দ্রুত ফলোয়ার বাড়ার বিষয়টি নজিরবিহীন!

এদিকে মুকিত খানের অভিযোগ গুরুত্ব সহকারে নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন হায়দাবাদের স্থানীয় পুলিশ কর্মকর্তা সৈয়দ ফাইয়াজ। তিনি বলেন, বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। সত্যিই কোনোভাবে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করার মতো কিছু থাকলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সিনেমাটির পরিচালক ওমর লুলু অবশ্য কারো ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের জন্য কিছু করা হয়নি। প্রিয়া তার ইনস্টাগ্রামে মামলার বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। তিনি লিখেছেন, ‘আসলে ওই দৃশ্যটি পরিকল্পিতভাবে হয়নি। হঠাৎ করেই এমনটি করে ফেলি। মামলার পর এমন পরিস্থিতিতে আসলে কী বলা উচিত বুঝতে পারছি না।’









Leave a reply