মহাশূন্য স্টেশনে যাচ্ছেন আমিরাতের নারীরা!

|

মহাশূন্য পরিভ্রমণে গিয়ে খবরের শিরোনাম হয়েছেন উন্নত বিশ্বের অনেক নভোচারী। এসব নভোচারীদের মধ্যে নারীদের সংখ্যাও নেহায়েত কম নয়। এবার মহাশূন্যে ঘুরে বেড়াবেন মুসলিম রাষ্ট্র সংযুক্ত আরব আমিরাতের নারীরা!

গত ডিসেম্বরেই জানা গিয়েছিল সংযুক্ত আরব আমিরাত মহাশূন্য মিশনে নাম লেখাতে যাচ্ছে। এজন্য আগ্রহী নভোচারীদের আবেদন করতে বলেছিল দেশটির সরকার। সাড়াও পড়েছে ভালো। এ পর্যন্ত আবেদন জমা পড়েছে ৩ হাজারেরও বেশি। ঝুঁকিপূর্ণ এই অভিযানে যেতে আগ্রহী প্রতি ৪ জন আবেদনকারীর ১ নারী বলে জানিয়েছেন আমিরাতের ‘মহাম্মদ বিন রশিদ স্পেস সেন্টার’র মহাপরিচালক সায়েদ আল গার্গাওই।

গার্গাওই আরও বলেন, এত বিপুল সংখ্যক নারীর আবেদন প্রমাণ করে আমিরাতের সরকার নারী উন্নয়নে আন্তরিক।

সায়েদ আল গার্গাওই আরও জানিয়েছেন আরব আমিরাতের মহাকাশ পরিকল্পনা সুদূরপ্রসারী। ২১১৭ সালের মধ্যে মঙ্গলে বসতি গড়তে চায় দেশটি।

তেলসমৃদ্ধ এই দেশটির প্রথম মিশনে নভোচারীদের নিয়ে যাওয়া হবে ইন্টারন্যাশনাল স্পেস স্টেশন, আইএসএস’ এ। আবেদনকারীদের কিছু যোগ্যতা থাকতে হবে। প্রথমত, অবশ্যই আমিরাতের নাগরিক হতে হবে। দ্বিতীয়ত, বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি ডিগ্রিও লাগবে আবেদন করার জন্য। সরকার জানিয়েছে, শারীরিকভাবে সক্ষমদের অগ্রাধিকার দেয়া হবে। মহাশূন্য নিয়ে আগ্রহী, সাবেক সেনা কর্মকর্তা এবং ডাক্তারদের আবেদন করার জন্য উৎসাহিত করা হয়েছে।

গতবছর ইউএই’র প্রধানমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ বিন রশিদ আল মাকতুম আমিরাতের আকাশচারীদের আন্তর্জাতিক মহাশূন্য স্টেশন আইএসএসে পাঠানোর প্রত্যয় ব্যক্ত করেছিলেন।

যমুনা অনলাইন: এনপি/টিএফ









Leave a reply