চলে গেলেন আসমা জাহাঙ্গীর

|

চলে গেলেন পাকিস্তানের খ্যাতনামা আইনজীবী ও মানবাধিকার কর্মী আসমা জাহাঙ্গীর। রোববার লাহোরে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তিনি মৃত্যু বরণ করেন। তার বয়স হয়েছিল ৬৬ বছর। প্রথম নারী হিসেবে পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট ছিলেন আসমা। পাকিস্তানের রাজনীতিতে সেনাবাহিনীর হস্তক্ষেপ বিষয়ে বরাবরই সোচ্চার ছিলেন তিনি।

আসমার মৃত্যুতে মানবাধিকার কর্মী আইনজীবীদের মধ্যে গভীর শোক নেমে এসেছে। বরবরই স্পষ্টভাষী আসমা নারী ও সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানবাধিকার রক্ষায় তৎপর ছিলেন। এ বিষয়ে জাতিসংঘের দূতও মনোনীত হয়েছিলেন তিনি।

১৯৫২ সালে লাহোরে এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে আসমা জন্মগ্রহণ করেন। আইন বিষয়ে ডিগ্রি অর্জন শেষে ১৯৮০ সালে লাহোরে হাইকোর্টে এরপর ১৯৮২ সালে সুপ্রিম কোর্টে যোগ দেন আসমা। পাকিস্তানের সামরিক শাসক জিয়াউল হকের শাসনকালে গণতন্ত্রের দাবিতে আন্দোলন গড়ে তোলায় ১৯৮৩ সালে আসমাকে গ্রেফতার করা হয়। ১৯৮৬ সালে তিনি জেনেভা চলে যান। সেখানে ১৯৮৮ সাল পর্যন্ত শিশুদের সুরক্ষা বিষয়ে কাজ করতে থাকেন। ১৯৮৭ সালে হিউম্যান রাইটস কমিশন ফর পাকিস্তান গঠন করেন আসমা। ২০০৭ সালে আইনজীবীদের আন্দোলনে নেতৃত্ব দেয়ায় সরকার তাকে গৃহবন্দি করে রাখে।

মানবাধিকার নিয়ে কাজ করার জন্য আসামা জাহাঙ্গীর বিশ্বজুড়ে নানা সম্মাননায় ভূষিত হন।

যমুনা অনলাইন: টিএফ


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply