একজনের ভাষণে দেশ স্বাধীন হয়নি: ফখরুল

|

ফাইল ছবি।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, একজনের ভাষণে দেশ স্বাধীন হয়নি। বহু মানুষের রক্ত আছে। যারা প্রবাসী সরকার ছিল তাদেরও স্মরণ করে না আওয়ামী লীগ।

মঙ্গলবার দুপুরে দেয়া বক্তব্যে ফখরুল বলেন, ভাসানী সাহেব আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি। তাকেও স্মরণ করে না। এক লোকের ভাষণে স্বাধীনতা আসেনি। প্রধানমন্ত্রী গতকাল মুক্তিযুদ্ধ ও জিয়াউর রহমানের নামে মিথ্যাচার করেছেন। তারা আসলে চায় একক ব্যক্তিকে ভাষণকে প্রতিষ্ঠা করতে।

ফখরুল অভিযোগ করেন, কোটি মানুষের দুর্ভোগ, শরণার্থী হওয়া কত নির্যাতন। জিয়াউর রহমানের স্বাধীনতার ঘোষণা না হলে যুদ্ধ শুরু হত না।

তিনি বলেন, কোন নেতাকে ছোট বা বড় করার জন্য নয়। স্বাধীনতায় সবার ভূমিকাকে আগামীর কাছে তুলে ধরতে চাই। সে কারণেই সরকারের গাত্রদাহ শুরু হয়েছে। জনগণের অবদানকে স্বীকার করতে হবে। আওয়ামী লীগের ভূমিকা আছে। জিয়া স্বাধীনতার মূল নায়ক। তবে একক ব্যক্তির ভূমিকার বদলে সবার ভূমিকা দেখান।

ফখরুল আরও বলেন, খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় আটকে রেখেছে। আর খুনিদের ছেড়ে দিচ্ছে। তারেক রহমানের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে বিদেশে রাখতে বাধ্য করছে। ৩৫ লাখ মামলা সারাদেশে। গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা ফিরিয়ে আনতে চাই। মেগা প্রজেক্টের নামে লুটতরাজ হচ্ছে।

সবশেষে ফখরুল ৭১ সালের মত জনগণকে সাথে নিয়ে ঐক্যবদ্ধ হয়ে গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র ফিরিয়ে আনতে কাজ করবো বলে আশাব্যক্ত করেন।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply