রাজিবের শাস্তি মওকুফের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিসিবি

|

কখনো গৃহকর্মী আবার কখনো মাঠে নিজ দলের খেলোয়াড়কে মারতে যাওয়া সব কিছু মিলিয়ে টাইগার ক্রিকেটের ব্যাড-বয়দের মধ্যে চলে এসেছিলো টাইগারদের এক সময়ের নিয়মিত টেস্ট দলে থাকা পেস বোলার শাহাদত হোসেন রাজিবেরও নাম।

শেষবার ন্যাশনাল লিগে নিজ দলের খেলোয়াড়কে পেটাতে গিয়ে পাঁচ বছরের জন্য সবধরনের ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ হয়েছিলেন তিনি। তবে সম্প্রতি তার মায়ের ক্যান্সার আর ক্রিকেট ছাড়া অন্য যে কোন কাজ করে জীবন যাপন করা তার জন্য প্রায় অসম্ভব ব্যাপার হয়ে দাড়ায়। সবদিকে চিন্তা করে তিনি শেষ বারের মত ক্ষমা চেয়ে বিসিবির কাছে তার শাস্তি মওকুফের আবেদন জানান।

সেই আবেদন আমলে নিয়ে বিসিবি শাহাদত হোসেন রাজিবের শাস্তি মওকুফের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে খুব দ্রুতই এই ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসবে বিসিবি থেকে। এমন সুখবর ইতোমধ্যে পৌঁছে গেছে শাহাদাতের কানে। শাস্তি মওকুফের ব্যাপারে শাহাদত বলেন, বিভিন্ন মাধ্যমে আমি জানতে পারলাম ক্রিকেট বোর্ড আমার শাস্তি কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ইনশাআল্লাহ, ক্রিকেট বোর্ড আমাকে খেলার অনুমতি দিলে বা খেলার সুযোগ করে দিলে আজীবন বোর্ডের কাছে কৃতজ্ঞ থাকব।

রাজিব আরও বলেন, এমন কোনো কাজ করব না যাতে বোর্ড বা আমার সম্মান ক্ষুণ্ণ হয়। সামনে জাতীয় লিগ আছে, যদি খেলার সুযোগ পাই তাহলে আমি আবারও বলছি- ক্রিকেট বোর্ডের কাছে কৃতজ্ঞ থাকব। এখন আমি আলহামদুলিল্লাহ অনেক ফিট। ইনশাআল্লাহ ভালো কিছু করার চেষ্টা করব।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply