ভেঙ্গে ফেলা হলো যুদ্ধ বিমানটি

|

পটুয়াখালী প্রতিনিধিঃ
বরিশাল-কুয়াকাটা মহাসড়কের ইউনিভার্সিটি স্কয়ারে স্থাপিত পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (পবিপ্রবি)’র দিক নির্দেশক স্মারক বিমানটি (মনুমেন্ট) ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে।

শনিবার সন্ধ্যায় নির্মানাধীন লেবুখালী নদীর উপরে পায়রা সেতুর অ্যাপ্রোচ সড়ক নির্মাণে নিয়োজিত মাটি কাটার যন্ত্র (এক্সাভেটর) দিয়ে এটি ভেঙ্গে ফেলা হয়। পবিপ্রবি ও লেবুখালী এলাকায় পায়রা নদীর ওপর চলমান পায়রা সেতু প্রকল্প কর্মকর্তারা এজন্য পরস্পরকে দুষছেন।

এদিকে রবিবার দুপুরে পবিপ্রবি’র ভারপ্রাপ্ত ভিসি ড. স্বদেশ সামন্ত, পটুয়াখালীর জেলা প্রশাসক মতিউল ইসলাম চৌধুরি, শেখ হাসিনা সেনানিবাসের জিওসি, বিমান বাহিনীর গ্রপ ক্যাপটেন জিএম আলী হায়দার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এসময় জেলা প্রশাসন জানান, এটি সংস্কার করতঃ পুনস্থাপন করার সম্ভাব্যতা নিরুপনের লক্ষ্যে বিমান বাহিনীর তিনজন সদস্যের একটি টিম কাজ শুরু করেছেন।

পবিপ্রবি সূত্র জানিয়েছে, ২০০৩ সালের দিকে বিমান বাহিনী থেকে অকেজো এফ-৬ বিমানটি পবিপ্রবি কর্তৃপক্ষকে উপহার হিসেবে দেয়া হলে সেটি বরিশাল-কুয়াকাটা মহাসড়কের পাগলার মোড় এলাকায় দিক নির্দেশক হিসেবে প্রতিস্থাপন করা হয়। তৎকালীন স্বরাষ্টমন্ত্রী এয়ার ভাইস মার্শাল অবঃ আলতাফ হোসেন চৌধুরী এটি নির্মিত করেন। তিনি বলেন, বিমানের সাথে পরিচিতি করার জন্য বিজ্ঞান মনস্ক শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসীর জন্য স্থাপিত এ বিমানটি অন্য কোথাও স্থাপন করা গেলে এতদঞ্চলের শিক্ষার্থী ও সাধারন মানুষ উপকৃত হতেন।

লেবুখালী সেতুর প্রকল্প পরিচালক মোঃ আব্দুল হালিম জানান, লেবুখালী এলাকায় পায়রা নদীর ওপর নির্মানাধীন পায়রা সেতুর পটুয়াখালী প্রান্তের এপ্রোচ সড়কের নির্মাণের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কোয়ারে প্রতিস্থাপিত স্মারক যুদ্ধবিমানটি অপসারনের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে ২০২০ সালের অক্টোবর মাস থেকে একাধিক চিঠি দেওয়া হয়েছে। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এটি সরানোর কোনো উদ্যোগ না নেওয়ায় সড়কের এপ্রোচ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply