ডুমুরিয়ায় নদী দখল করা সকল ইটভাটার কার্যক্রমে স্থিতিবস্থা বহালের নির্দেশ

|

বর্তমান সংসদ ও উপজেলা চেয়ারম্যানসহ বেশ কয়েকজনের ওপর খুলনার ডুমুরিয়ায় ভদ্রা ও হরি নদী দখল করে ইটভাটার সকল কার্যক্রমের ওপর স্থিতিবস্থা বজায় রাখার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

বৃহস্পতিবার বিচারপতি মো. মজিবর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মো. কামরুল হোসেন মোল্লা এ আদেশ দেন। আদালত ভদ্রা ও হরি নদীর জায়গা দখল ও বাধ নির্মাণ অপসারণে কর্তৃপক্ষের নিষ্ক্রিয়তা কেন বেআইনি ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়ে চার সপ্তাহের রুল জারি করেন।

শুনানিতে বাদি পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মনজিল মোরশেদ বলেন, রিট মামলার রায় অনুযায়ী নদীর সীমানা সিএস বা আরএস অনুযায়ী নির্ধারিত হবে। আদালত থেকে নদীর জীবন স্বত্ব ঘোষণা করা হয়েছে, যার কারণে নদী দখল রোধে প্রশাসনের নীরব ভূমিকা বেআইনি।

আদালত রুল জারির পাশাপাশি দুই সপ্তাহের মধ্যে খুলনার পরিবেশ অধিদফতরের পরিচালক, ডিসি, এসপি, পানি উন্নয়ন বোর্ড, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, এসিল্যান্ড, ওসিকে আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করতে নির্দেশ দিয়েছেন।

আদালত অপর এক আদেশে খুলনার জেলা প্রশাসক ও ডুমুরিয়ার এসিল্যান্ডকে সিএস আরএস অনুসারে জরিপ করে ভদ্রা ও হরি নদীর সীমানা নির্ধারণ করে ৯০ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন এফিডেভিট করে আদালতে জমা দেয়ার নির্দেশ দেন।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply