শাহবাগের বিক্ষোভ থেকে আটককৃতদের বিরুদ্ধে পুলিশ ‘হত্যাচেষ্টা’ মামলা

|

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় কারাবন্দী অবস্থায় লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যুর প্রতিবাদে রাজধানীর শাহবাগে মশাল মিছিলকারীদের সঙ্গে সংঘর্ষের সময় আটক সাতজনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে পুলিশ। 

গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে পুলিশ সদস্যদের ‘হত্যাচেষ্টার’ অভিযোগ আনা হয়েছে মামলায়। শুক্রবার মধ্যরাতে শাহবাগ থানায় মামলাটি করা হয়।  

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যুকে কেন্দ্র করে গতকাল সন্ধ্যায় মো. তামজিদ হায়দার (২২), নজির আামির চৌধুরী জয় (২৭), এ এস এম তানজিমুর রহমান (২২), মো. আকিব আহম্মেদ (২২), মো. আরাফাত সাদ (২৪), নাফিজা জান্নাত (২৪) ও জয়তী চক্রবর্তীর (২৩) নেতৃত্বে এক থেকে দেড় শ উগ্র দুষ্কৃতিকারী মশাল মিছিল নিয়ে ভীতিকর পরিবেশ সৃষ্টি করে রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি থেকে শাহবাগ মোড়ের উদ্দেশে রওনা হয়। পুলিশ তাদের ফিরে যাওয়ার অনুরোধ জানালে মিছিলকারীরা মশাল দিয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা করে এবং ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। 

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় গ্রেফতার হয়ে কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কারাগারে বন্দী অবস্থায় বুধবার লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যু হয়। এর প্রতিবাদে শুক্রবার দিনভর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় বিক্ষোভ করেন বামধারার ছাত্র সংগঠনগুলোর নেতাকর্মীরা।

এদিন সন্ধ্যায় টিএসসি থেকে মশাল মিছিল নিয়ে শাহবাগে এলে তাদের বাধা দেয় পুলিশ। এক পর্যায়ে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ বেধে যায়। এ সময় পুলিশের লাঠিপেটায় তাদের ৩০ জন আহত হয়েছেন বলে দাবি করেছেন আন্দোলনকারীরা। অপরদিকে আন্দোলনকারীদের হামলায় ১৫ জন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছিলেন বলে দাবি করা হয়।

ঘটনার সময় সাতজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তারা হলেন- আমজিন হায়দায় (২২), নজিব আমিন চৌধুরী (২৭), তানজিমুর রহমান (২২), আকিব আহমেদ (২২), আরাফাত (২৬), নাজিফা জান্নাত (২৪) ও জয়তী চক্রবর্তী (২৩)।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply