জ্বালানী তেলের মুল্য বৃদ্ধিকে কেন্দ্র করে উত্তাল ভারত

|

জ্বালানী তেলের মুল্যবৃদ্ধিকে কেন্দ্র করে উত্তাল ভারত। ৭ দিনের ব্যবধানে ৪ বার বেড়েছে দেশটিতে জ্বালানীর দাম। এরইমধ্যে পেট্রোল ছাড়িয়েছে ১শ রুপির ঘর। করোনায় সৃষ্ট অর্থনৈতিক সংকটের মধ্যেই, জ্বালানীর দামের প্রভাব পড়েছে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দামেও। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ ভারতের সাধারণ মানুষ।

জ্বালানীর মৃল্য বৃদ্ধিকে কেন্দ্র করে গেল কয়েক দিন ধরেই উত্তপ্ত ভারতের রাজনীতি। জ্বালানীর দাম বাড়ার প্রতিবাদে দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ করে যুব কংগ্রেস, বাধা দেয় পুলিশ। যুব কংগ্রেস নেতা রাহুল রয় বলছেন, পেট্রোলের দাম একশ রুপি ছাড়িয়ে গেছে। ডিজেল, কেরোসিন, গ্যাস সব জ্বালানীরই দাম বাড়তি। মোদি সরকারের ব্যর্থতার কারণেই আজ এই অবস্থা। তাই আমরা বিক্ষোভে নেমেছি।

সূচক বলছে, গেল ৭ দিনে অন্তত ৪বার বেড়েছে পেট্রোল ও ডিজেলের দাম। মুল্য বৃদ্ধি অব্যাহত আছে কেরোসিন ও গ্যাসেরও। একদিকে করোনার কারণে অর্থনৈতিক চাপে দেশটির সাধারণ মানুষ। এরমধ্যে জ্বালানীর দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় বেড়েছে অন্যান্য নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দামও। ফলে ক্ষোভ সাধারণ ভারতীয়দের মাঝেও। সাধারণ ভারতীয়রা বলছেন, জ্বালানী এমনটা জিনিস, যার দাম বাড়লে প্রভাব পড়ে সবকিছুর ওপর। নিত্যপ্রয়োজনীয় সবকিছুর দাম বেড়ে যায় এর কারণে। কোনোকিছুর দাম একবার বাড়লে সেটা আর কমে না। জ্বালানীর দাম বাড়লে তাই আতঙ্কে থাকি।

মূলত স্থানীয় কর ও ভ্যাটের কারণে রাজ্যেভেদে তারতম্য হয় জ্বালানী তেলের দামে। তবে কেন্দ্রীয় সরকার বলছে, আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানী তেলের দাম বাড়ায় এর প্রভাব বেড়েছে ভারতের বাজারে।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply